behind the news
Rehab ad on bangla tribune
Vision Refrigerator ad on bangla Tribune

আফগানিস্তানে অপহৃত ব্র্যাকের দুই কর্মকর্তা উদ্ধার

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট২১:১১, এপ্রিল ০৪, ২০১৬

বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাকের আফগানিস্তান শাখার অপহৃত দুই কর্মকর্তাকে উদ্ধার করা হয়েছে। ব্র্যাকের মিডিয়া ম্যানেজার মাহবুবুল আলম কবির সোমবার বাংলা ট্রিবিউনকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আফগানিস্তানে অপহৃত ব্র্যাকের দুই কর্মকর্তা (বামে) প্রধান প্রকৌশলী হাজি শওকত আলী ও প্রধান হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম সুমন

এই দুই কর্মকর্তা হলেন আফগানিস্তানে ব্র্যাকের প্রধান প্রকৌশলী হাজি শওকত আলী (৫২) এবং প্রধান হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম খান সুমন (৩৫)।  গত ১৭ মার্চ সংঘাতপ্রবণ আফগানিস্তানের কুন্দুজ থেকে বাগলান যাওয়ার পথে অপহৃত হয়েছিলেন তারা। অজ্ঞাতপরিচয় বন্দুকধারীরা তাদের অপহরণ করে। স্থানীয় নেতাদের সহযোগিতায় তাদের দুইজনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে বলে জানিয়েছেন ব্র্যাকের কর্মকর্তারা। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

সিরাজুল ইসলাম সুমনের বাড়ি পাবনা সদর উপজেলার দুবলিয়া গ্রামে। আর শওকত আলীর বাড়ি একই জেলার ফরিদপুর উপজেলার হাংরাগাড়ি গ্রামে। সুমন চার বছর ও শওকত ১০ বছর ধরে আফগানিস্তানে কাজ করছেন।

ব্র্যাকের মিডিয়া ম্যানেজার মাহবুবুল আলম কবির জানান, দুই কর্মকর্তার অপহৃত হওয়ার খবর পাওয়ার পরপরই ব্র্যাকের এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক জালালউদ্দিন আহমেদ আফগানিস্তানে চলে যান। সেখানে স্থানীয় প্রশাসন ও ব্র্যাকের কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে তিনি অপহৃত দুই কর্মকর্তাকে উদ্ধারের চেষ্টা চালান।

জালাল উদ্দিনকে উদ্ধৃত করে ব্যাকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘আলোচনার ভিত্তিতে স্থানীয় শূরা কাউন্সিলের সহায়তায় দুই সহকর্মী আমাদের মাঝে ফিরে এসেছেন।'    সোমবার ভোরে অক্ষত অবস্থায় মুক্তি পেয়ে শওকত ও সুমন ব্র্যাকের কাবুল কার্যালয়ে চলে আসেন বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।  দুজন এখন কাবুলেই রয়েছেন।

ব্র্যাক আফগানিস্তানে কাজ শুরু করে ২০০২ সালে। দেশটির ৩৪টি প্রদেশের মধ্যে ২৩টিতেই ক্ষুদ্র ঋণ, শিক্ষা , স্বাস্থ্য, অবকাঠামো উন্নয়নসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করছে সংস্থাটি। আফগানিস্তানে ব্র্যাকের প্রায় ৪২৯টি শাখা আছে।

তবে এর আগেও আফগানিস্তানে ব্র্যাক কর্মীদের অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। সংস্থাটি ২০১২ সালের মে মাসে ঘোর প্রদেশে ব্র্যাকের একটি কার্যালয়ে ঢুকে এক কর্মকর্তাকে গুলি করে হত্যা করে জঙ্গিরা।

এরও আগে ২০১০ সালের ডিসেম্বরে ব্র্যাকের এক প্রকৌশলীকে হত্যা করে অপহরণ করা হয় ছয়জনকে। ২০০৭ সালের সেপ্টেম্বরে অজ্ঞাতপরিচয় বন্দুকধারীদের গুলিতে প্রাণ যায় আরেক ব্র্যাক কর্মকর্তার। ওই বছর নূরুল ইসলাম নামে এক ব্র্যাক কর্মকর্তা অপহৃত হওয়ার ৮৩ দিন পর মুক্তি পান। ২০০৮ সালের অক্টোবরে গজনি প্রদেশ থেকে অপহৃত হন দুইজন। দশদিন পর তাদের মুক্তি দেওয়া হয়।

/এফএস/

/আপ: এইচকে/

Ifad ad on bangla tribune

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ