behind the news
Rehab ad on bangla tribune
Vision Refrigerator ad on bangla Tribune

নথিতে সবার আগে সই করতে চান না কমিশনার শাহনেওয়াজ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট২২:৫২, এপ্রিল ০৪, ২০১৬

নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজবিগত ৪ বছরের প্রাকটিস অনুযায়ী নির্বাচন কমিশনের যেকোনও ধরনের সিদ্ধান্ত সম্পর্কিত নথিতে সবার আগে সই করেন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ। কিন্তু তিনি এখন থেকে আর সবার আগে সই করতে রাজি নন। এ বিষয়ে তিনি সমাধান চেয়ে নির্বাচন কমিশন সচিব মো. সিরাজুল ইসলামের কাছে একটি আন-অফিসিয়াল চিঠিও দিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি নথি স্বাক্ষরের বিষয়ে একটি প্রস্তাবনাও দিয়েছেন। এতে একেক সপ্তাহে একেক কমিশনারের আগে সই করার নিয়ম চালু করার প্রস্তাব দেন।
জানতে চাইলে কমিশন সচিবালয়ের সচিব সিরাজুল ইসলাম সোমবার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, কমিশনার শাহনেওয়াজ এমন একটি প্রস্তাব করেছেন।
জানা যায়, কমিশন সচিবালয়কে শাহনেওয়াজ লিখিতভাবে বলেছেন- তিনি সবার আগে সই করেন, বাকিরা পরে করেন। যে কারণে সবশেষে কী সিদ্ধান্ত হয় তা তিনি জানতে পারেন না। সেজন্য বিদ্যমান নিয়মের পরিবর্তন দরকার। তিনি আরও বলেছেন- সংবিধান অনুযায়ী জ্যেষ্ঠ বা কনিষ্ঠ কমিশনার বলে কেউ নেই।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ, কমিশনার আবদুল মোবারক, আবু হাফিজ ও জাবেদ আলী ২০১২ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি কমিশনে যোগদান করেন। মো. শাহনেওয়াজ তাদের ৬ দিন পর ১৫ ফেব্রুয়ারি যোগদান করেন।

কমিশন সচিবালয় থেকে জানা যায়, রেওয়াজ অনুযায়ী কমিশনারদের মধ্যে যে ব্যক্তি সবার পরে যোগদান করে থাকেন, তিনি সবার আগে নথিতে সই করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ৩১ মার্চ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চাঁদপুরের একটি ইউনিয়নের ভোট গ্রহণ স্থগিত করা সংক্রান্ত নথিতে সবার আগে বেলা সাড়ে ১১টায় সই করেন কমিশনার শাহনেওয়াজ। এরপর নথিটি কমিশনার জাবেদ আলীর কাছে যায়। তিনি সেই নথি বিকেল চারটা পর্যন্ত আটকে রাখেন। যে কারণে শেষ পর্যন্ত ওই ইউনিয়নের ভোট গ্রহণ বন্ধ করা সম্ভব হয়নি। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কমিশনার শাহনেওয়াজ অত্যন্ত ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

জানা গেছে, চাঁদপুরের এই ঘটনা ছাড়াও সাম্প্রতিক বেশ কয়েকটি ঘটনা নিয়ে কমিশনারদের মধ্যে ব্যাপক ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে প্রকোটল ভেঙে একজন কমিশনের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দপ্তর ভিজিট, কোনও কোনও কমিশনারদের কারণে অকারণে দেশের বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণে যাওয়া ইত্যাদি। এসব ঘটনাকে কেন্দ্র করে কয়েকবার কমিশন বৈঠকে নিজেদের মধ্যে উচ্চবাক্য বিনিময় হয়েছে বলেও জানা গেছে।

/ইএইচএস/এএইচ/

Ifad ad on bangla tribune

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ