behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

পহেলা বৈশাখের আগেই পাট শ্রমিকদের মজুরি পরিশোধের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট১৩:২৯, এপ্রিল ১১, ২০১৬

পহেলা বৈশাখের আগেই পাট শ্রমিকদের মজুরি পরিশোধের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যশোর-খুলনা অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর শ্রমিকদের লাগাতার আন্দোলন এবং রাজপথ-রেলপথ অবরোধের ঘটনায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর শ্রমিকদের জন্য একহাজার কোটি টাকা জরুরি ভিত্তিতে ছাড় দেওয়ার জন্য অর্থমন্ত্রীকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। সোমবার মন্ত্রিপরিষদের নিয়মিত বৈঠকে অর্থমন্ত্রীকে দ্রুত এই টাকা ছাড় করার নির্দেশ দেন তিনি। দেশের ২৭টি পাটকলের ৭২ হাজার শ্রমিক এ সুবিধা পাবেন।
বৈঠকের অনির্ধারিত আলোচনায় চলমান পাট শ্রমিকদের আন্দোলনের বিষয়ে পাটকলগুলোর পাওনার প্রসঙ্গ উঠলে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশ দেন। এসময় পাট সেক্টরে বিরাজমান সমস্যা দ্রুত সমাধানের জন্যও পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী।
প্রধানমন্ত্রী পহেলা বৈশাখের আগেই যেন শ্রমিকেরা তাদের পাওনা মজুরি বুঝে পান সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে পাট মন্ত্রণালয়কে নিজস্ব তহবিল থেকে দ্রুত ৪৮ কোটি টাকা ছাড় করার নির্দেশ দেন। আগামীকাল মঙ্গলবার থেকেই প্রতিটি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলে এসব পাওনা পরিশোধের প্রক্রিয়া শুরু হবে।

আরও পড়তে পারেন
খুলনায় ফের শুরু হয়েছে পাটকল শ্রমিকদের রাজপথ-রেলপথ অবরোধ-২খুলনা-যশোর অঞ্চলে সকাল সন্ধ্যা রাজপথ-রেলপথ অবরোধ অব্যাহত

গাইবান্ধার শৌচাগারে মিলছে রডের বদলে বাঁশএবার গাইবান্ধায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শৌচাগারে রডের বদলে বাঁশ!

 

গরমে বিপর্যস্ত জনজীবনচৈত্রের গরমে বিপর্যস্ত দক্ষিণাঞ্চলের জনজীবন


এদিকে, মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকের পর সচিবালয়ে ফিরে পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী ইমাজুদ্দিন প্রামাণিক বিশেষ সংবাদ সম্মেলনে জানান, পাটকলগুলোতে দীর্ঘদিন ধরে বিরাজমান সমস্যার সমাধান না পেয়ে বাধ্য হয়ে মাঠে নেমেছিলেন দক্ষিণাঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকরা। তাদের এসব নায্য দাবির বিষয় অবগত করে পাওনা পরিশোধের জন্য পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে এক হাজার কোটি টাকা চাওয়া হচ্ছিল অনেকদিন ধরেই। কিন্তু, অর্থমন্ত্রী এতোদিন এ প্রস্তাবে কান দেননি। এ কারণে আবারও পাটকল শ্রমিকরা আন্দোলনে নামায় বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আন্দোলনরত শ্রমিকদের পাওনা বুঝিয়ে দিতে অবিলম্বে এক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের নির্দেশ দেন অর্থমন্ত্রীকে। পহেলা বৈশাখের (১৪ এপ্রিল) আগেই যাতে তারা প্রাপ্য মজুরি বুঝে পান সেজন্য পাট মন্ত্রণালয়ের নিজস্ব তহবিল থেকে ৪৮ কোটি টাকা বরাদ্দেরও নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। আগামীকাল থেকেই এসব শ্রমিকের পাওনা মজুরি বুঝিয়ে দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

খুলনায় ফের শুরু হয়েছে পাটকল শ্রমিকদের রাজপথ-রেলপথ অবরোধ-১

পাটমন্ত্রী আরও জানান, অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে পুরো টাকা (এক হাজার কোটি) ছাড় করতে সপ্তাহখানেক সময় লাগতে পারে। এ টাকা পাওয়া মাত্র সব পাটশ্রমিকের প্রভিডেন্ট ফান্ড ও গ্রাচ্যুইটি পরিশোধ করা হবে। তিনি জানান, ২৭টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের সব শ্রমিক এ সুবিধা পাবেন।
প্রসঙ্গত: রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোতে ৭২ হাজার শ্রমিক রয়েছেন। এদের মধ্যে ৩২ হাজার স্থায়ী এবং ৪০ হাজার অস্থায়ী শ্রমিক। এসব শ্রমিকের মজুরি বকেয়া রয়েছে ৪৮ কোটি টাকা, প্রভিডেন্ট ফান্ডের বকেয়া সাড়ে ৪শ’ থেকে ৫শ’ কোটি টাকা, গ্র্যাচুইটি পাওনা রয়েছে ৩শ’ কোটি টাকা। অবশিষ্ট দেড়শ কোটি টাকা দিয়ে নতুন পাট কেনা হবে। 

সংবাদ সম্মেলনে পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এবং সচিব আব্দুল কাদের সরকার উপস্থিত ছিলেন।     

/ওএফ/এসআই/এমও/টিএন/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ