Vision  ad on bangla Tribune

স্ত্রীর মামলায় অতিরিক্ত ডিআইজি সাময়িক বরখাস্ত

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট১৯:৩২, এপ্রিল ২০, ২০১৭

চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. সাখাওয়াত হোসেনস্ত্রীর দায়ের করা নারী নির্যাতন মামলার কারণে চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. সাখাওয়াত হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।
নির্যাতন ও যৌতুকসহ বিভিন্ন অভিযোগে ফারজানা শারমিন তার স্বামী অতিরিক্ত ডিআইজি মো. সাখাওয়াত হোসেনের বিরুদ্ধে চারটি মামলা দায়ের করেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১১(গ) ধারায় ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ একটি পিটিশন মামলা (নং-৪/২০১৭) দায়ের করেন।
এছাড়াও, যৌতুক নিরোধ আইনের ৪ ধারায় মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১৪ তে দায়ের করেন সিআর মামলা (নং-৭৫০/২০১৬)। মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে ৪৯৪ ও ৫০৬ দণ্ডবিধিতে আরেকটি সিআর মামলা (নং-২২/২০১৭) দায়ের করেন। জেলা ও দায়রা জজ আদালতেও একটি মামলা দায়ের করেন সাখাওয়াত হোসেনের স্ত্রী।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১১(গ) ধারা অনুযায়ী দায়ের করা পিটিশন মামলায় (০৪/২০১৭) সাখাওয়াত হোসেনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ইস্যু হওয়ার পর গত ১৩ ফেব্রুয়ারি আদালতে হাজির হয়ে তিনি জামিন লাভ করেন।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জামিনপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কারাগারে আটক (Taken into custody) মর্মে গণ্য হবেন বিধায় তাকে চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা সমীচীন। তাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অফিস মেমোরেন্ডাম অনুযায়ী পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. সাখাওয়াত হোসেনকে চাকুরি থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। বরখাস্তকালীন সময়ে তিনি পুলিশ অধিদফতরে সংযুক্ত থাকবেন।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত ডিআইজি সাখাওয়াত হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, গত এক বছর আগে তিনি তার স্ত্রী ফারজানা শারমীনকে ডিভোর্স দেন। যা এরইমধ্যে আদালত কর্তৃক কার্যকর হয়েছে। এরপর ফারজানা তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

তিনি আরও বলেন, ‘নিয়মানুযায়ী আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনও নিয়েছি। কিন্তু জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় নিয়মানুযায়ী সাময়িক বরখাস্ত করেছে।’ তিনি তার বিরুদ্ধে অন্যান্য অভিযোগও অস্বীকার করেন।

/জেইউ/এমও/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ