কদমতলীতে পারিবারিক কলহে এক ব্যক্তি নিহত

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০২:৩৭, মে ২৭, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ০৫:৪৮, মে ২৭, ২০১৭

লাশ উদ্ধাররাজধানীর কদমতলীর মুক্তধারা এলাকায় একটি বাড়িতে পারিবারিক কলহের জেরে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। শুক্রবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, শ্যালিকা মিতু আক্তারের (১৭) সেলাই রেঞ্জের আঘাতে দুলাভাই জামাল খন্দকার (৪০) নিহত হয়েছেন। পরে বাড়ির বাসিন্দারা মিতু আক্তারকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। 

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, জামাল খন্দকার পেশায় একজন ইলেকট্রিশিয়ান। মুক্তধারা এলাকার চারতলা বাড়ির নীচতলায় তিনি স্ত্রী, দুই মেয়ে ও শ্যালিকা মিতু আক্তারকে নিয়ে ভাড়া থাকতেন।

আটক মিতু আক্তার পুলিশকে জানিয়েছে, তিন বছর আগে দুলাভাইয়ের সঙ্গে তার অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত মাসে মিতু তার দুলাভাইকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। কিন্তু দুলাভাই তাকে বিয়ে না করায় বিষয়টি বোন শারমিন আক্তারকে জানায়। এ নিয়ে তার বোনের সংসার জীবনে কলহ চলতে থাকে। গত সপ্তাহ থেকে দুলাভাই বোনকে (স্ত্রী) ঘুমের ওষুধ খাইয়ে প্রতিরাতে তার সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক করে আসছিল। এ বিষয়টিও বোনকে বলে দেওয়ায় দুলাভাই ক্ষুব্ধ হয়। শুক্রবার সকালে এ নিয়ে পারিবারিক সালিশ বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। সকাল ১০টার দিকে তার বোন বাড়ির মালিক ও তার স্ত্রীকে ডাকতে যান। এসময় দুলাভাইয়ের সঙ্গে মিতুর কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ঘরে থাকা সেলাই রেঞ্জ দিয়ে দুলাভাইয়ের মাথায় আঘাত করেন মিতু। পরে মোবাইল ফোনের চার্জারের তার গলায় পেঁচিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করেন।

কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াজেদ আলী বলেন, ‘পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।’

/এআইবি/এসএনএইচ/

লাইভ

টপ