লিট ফেস্টে থাকছে কাজী আনিস আহমেদের সব বইয়ের অনুবাদ

Send
মোহাম্মদ মারুফ
প্রকাশিত : ২৩:৩৪, নভেম্বর ০৮, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৪৪, নভেম্বর ০৮, ২০১৭

‘হাতের তারায় বিশ্ব খেলে’ বইয়ের প্রচ্ছদবিশ্বের বিভিন্ন দেশের খ্যাতিমান কবি, সাহিত্যিক, শিল্পী, গবেষক, সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মীদের মহামিলন উৎসব সপ্তম ঢাকা লিট ফেস্ট শুরু হতে আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। বাংলা একাডেমি চত্বরে তিন দিনব্যাপী এই মহোৎসব চলবে ১৬ থেকে ১৮ নভেম্বর। বিগত আয়োজনগুলোর অভিজ্ঞতা থেকে  সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় সাহিত্যিকদের সর্ববৃহৎ এই মিলন উৎসবের অন্যতম পরিচালক হিসেবে এবারের  আয়োজনকেও সুন্দর ও সফলভাবে সম্পন্ন করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন কথা সাহিত্যিক আনিস আহমেদ।

ঢাকা লিট ফেস্টের  পরিচালক  কাজী  আনিস আহমেদ লেখালেখিতেও এগিয়ে চলেছেন স্বমহিমায়। ইংরেজিতে লেখা তার বইগুলো ইতোমধ্যে বাংলা ভাষায় অনুদিত হয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হলো- হাতের তারায় বিশ্ব খেলে, গুডনাইট মি. কিসিঞ্জার ও অন্যান্য গল্প, চল্লিশ কদম।
চল্লিশ কদম গল্পটি কাজী আনিস আহমেদের প্রথম বড় গল্প ‘ফোর্টি স্টেপস’ এর অনুবাদ। ‘ফোর্টি স্টেপস’ প্রথম প্রকাশিত হয় ২০০০ সালে মিনেসোটা রিভিউ’র স্প্রিং সংখ্যায়। পরবর্তীকালে এটির বাংলা  অনুবাদ করেন মানবেন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়।  চল্লিশ কদম গল্পে কাজী আনিস আহমেদ একই সঙ্গে বর্ণনা করেছেন অন্তর্দৃষ্টিসম্পন্ন, আবেগময় হাস্যরসে উপভোগ্য এক আখ্যান। গল্পে মারা যাবার পর ইহকালের জীবন নিয়ে জেরার জন্য অপেক্ষারত শিকদার সাহেব পাঠককে নিয়ে যান এক যাত্রায়, যেখানে বিচিত্র সমাবেশ ঘটে পূর্ব বাংলার প্রতিনিধিত্বকারী একগুচ্ছ চরিত্রের। বিভিন্ন রকমের চরিত্রগুলো তাঁদের দ্বিধা, আশা-আকাঙ্ক্ষা নিয়ে সৃষ্টি করেছে এক বিশ্বজনীন আবেদন। কেননা, সেসবের মধ্যে আমরা নিজেদের দ্বিধা আর আশা-আকাঙ্ক্ষা দেখতে পাই।

 

‘গুডনাইট মি. কিসিঞ্জার ও অন্যান্য গল্প’ বইয়ের প্রচ্ছদ

২০১২ সালে প্রকাশিত হয় তাঁর প্রথম ছোটগল্প সংকলন গুডনাইট মি.  কিসিঞ্জার ও অন্যান্য গল্প। এটি  বাংলাদেশে ইউপিএল এবং যুক্তরাষ্ট্রে দ্য আননেমড প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত হয়। বইটির বাংলা অনুবাদ করেন মুহম্মদ মুহসিন; যেটি কাগজ প্রকাশন থেকে প্রকাশিত হয়। গুডনাইট মি.  কিসিঞ্জার ও অন্যান্য গল্প বইটির গল্পে ঘিঞ্জি আর গ্যাঞ্জামের শহর ঢাকার চিত্র ফুটে উঠেছে। ব্যর্থতা আর বিচ্ছিন্নতার গল্পে ছেয়ে থাকে এই শহর। এসবের মাঝেই রয়েছে আনন্দ গাঁথা, রয়েছে মিলনের সুর। একটি শান্ত-শায়িত প্রাদেশিক রাজধানী শহরের রূপ থেকে আজকের অথর্ব মহানগরী পর্যন্ত এখনকার মানুষেরা কিভাবে ধুঁকে ধুঁকে জীবনের আয়তন জুড়ে দেখছে ও শিখছে প্রেমের প্রয়াণ, আর আশা-আকাঙ্ক্ষার আহুতি, সেইসব চিত্র জুড়েই ‘গুডনাইট মি.  কিসিঞ্জার ও অন্যান্য গল্প’ বইটির গল্পের নির্মাণ। এ বইয়ে মোট নয়টি গল্প রয়েছে।

কাজী আনিস আহমেদের প্রথম উপন্যাস ‘ দ্য ওয়ার্ল্ড ইন মাই হ্যান্ডস’ ভিনটেজ/র‍্যানডম হাউজ থেকে প্রকাশিত হয় ২০১৩ সালে। পরবর্তীকালে কাগজ প্রকাশন থেকে  ‘হাতের তারায় বিশ্ব খেলে” নামে উপন্যাসটির বাংলা অনুবাদ প্রকাশিত হয়। এটির অনুবাদ করেন তপন শাহেদ। এই উপন্যাসে ফুটে উঠেছে বাংলাদেশে সেনা সমর্থিত জরুরি অবস্থার প্রতি লেখকের তীব্র বেদনার্ত  স্যাটায়ার। এই উপন্যাসের গল্পে খবরের কাগজের সম্পাদক হিশামের কলেজের পুরনো বন্ধু কায়সার তার তুলনায় যথেষ্ট উন্নতি করেছে; শহরের সবচাইতে টাকাওয়ালা প্রপার্টি ডেভেলপারদের একজন সে। ঘটনাচক্রে কায়সার আবার বিয়ে করে হিশামেরই স্বপ্নের নারীকে। ওর সামনে বড় একটা দান মারার মোক্ষম সুযোগ এলো সেনা সমর্থিত জরুরি অবস্থার রূপ ধরে। হিশাম আর কায়সার দুই বন্ধু দুই পক্ষ নিলো। তারপর দেখলো তাতে দুজনের পথই শুধু আলাদা হয়নি, দুজনের সম্পর্ক আর জীবনটাই চিরকালের মতো পাল্টে গেছে।

 

 

/এপিএইচ/

লাইভ

টপ