বিশ্বসাহিত্য অঙ্গনে পৌঁছাতে ভালো অনুবাদের বিকল্প নেই

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১১:৪৩, নভেম্বর ১৭, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:২৪, নভেম্বর ১৭, ২০১৭

‘ক্রিটিক্যাল মুসলিম: লঞ্চ অব বাংলাদেশ ইস্যু’ শীর্ষক সেশনে বক্তারা বাংলা সাহিত্যকে বিশ্বসাহিত্যের অঙ্গনে পৌঁছে দিতে এর ভালো মানের ইংরেজি অনুবাদ থাকা জরুরি। আবার বিশ্বসাহিত্যকে আমাদের ভালোভাবে জানতে হলেও ইংরেজি সাহিত্যকে বাংলা ভাষায় অনুবাদ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে আমরা এখনও পিছিয়ে রয়েছি। কিন্তু বিশ্বসাহিত্য অঙ্গনে বাংলা সাহিত্যকে তুলে ধরতে ভালো অনুবাদের কোনও বিকল্প নেই।
ঢাকা লিট ফেস্টের দ্বিতীয় দিনে বাংলা একাডেমির ভাস্কর নভেরা এক্সিবিশন হলে অনুষ্ঠিত হলো ‘ক্রিটিক্যাল মুসলিম: লঞ্চ অব বাংলাদেশ ইস্যু’ শীর্ষক এক সেশনে বক্তারা এসব কথা বলেন। বাংলা সাহিত্যের ইংরেজি অনুবাদ ও ইংরেজি সাহিত্যের বাংলা অনুবাদের ক্ষেত্রে বর্তমান অবস্থা, সীমাবদ্ধতা ও এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের উপায় নিয়ে বক্তারা আলোচনা করেন এই সেশনে।
শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্ন্ত এই সেশন অনুষ্ঠিত হয়। সেশনে আমের হোসেনের উপস্থাপনায় অংশ নেন লেখক ও অনুবাদক কায়সার হক, মারিয়া চৌধুরী, রাজিব রহমান ও সরবরি আহম্মেদ।
সেশনের কায়সার হক লালনগীতির একটি অনুবাদ উপস্থিত দর্শকদের পড়ে শোনান। এরপর তিনি ইংরেজি ভাষায় বাংলা সাহিত্য অনুবাদ, অনুবাদের সমস্যা, অনুবাদের মান ও বিশ্ব সাহিত্যে বাংলা সাহিত্যকে তুলে ধরার বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, ইংরেজি সাহিত্যের বাংলা অনুবাদের মান নিয়ে যেমন পাঠকদের প্রশ্ন রয়েছে, তেমনি বাংলা সাহিত্যের ইংরেজি ভাষায় অনুবাদের মান নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে। বিশ্বসাহিত্যে বাংলা সাহিত্যকে পৌঁছে দিতে বাংলা সাহিত্যের ইংরেজি অনুবাদকে আরও মানসম্মত হতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
এসময় মারিয়া চৌধুরী বাংলা সাহিত্য অনুবাদ করার সময় তার অভিজ্ঞতা এবং সাহিত্যের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।
সেশনে রাজিব রহমান তার লেখা একটি কবিতা পড়ে শোনান। পরে ওই এক কবিতার ইংরেজি অনুবাদ পড়ে শোনানো হয়।
সেশনে এক দর্শক বাংলা সাহিত্যের ইংরেজি অনুবাদের মান দুর্বল হওয়ার কারণ জানতে চাইলে কায়সার হক অনুবাদ সাহিত্যের ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের সীমাবদ্ধতা ও প্রতিকূলতার বিষয়গুলো তুলে ধরেন। এ ক্ষেত্রে উন্নতি করতে ভবিষ্যতে কী করণীয়, তা নিয়ে আলোচনা করেন বক্তারা।

/এমডিপি/টিআর/

লাইভ

টপ