লিট ফেস্টে শিশুদের গল্পের আসর

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:১০, নভেম্বর ১৮, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:২০, নভেম্বর ১৮, ২০১৭

গল্পের আসরে মুগ্ধ হয়ে গল্প শুনছে শিশুরাঢাকা লিট ফেস্টের তৃতীয় ও শেষ দিনে শিশুদের জন্য ছিল গল্পের আসর। এতে বিভা সিদ্দিকি ও ফারজানা আহমেদের স্নিগ্ধ কণ্ঠে রঙিন বইয়ে পাতায় চোখ রেখে মুগ্ধ হয়ে গল্প শোনে শিশুরা।
বাংলা একাডেমির নজরুল মঞ্চে সকাল ১০টায় শুরু হয় এই গল্পের আসর। নজরুল মঞ্চের বটতলায় পাখ-পাখালির কাকলিতে শিশুদের পড়ে শোনানো হয় ‘বংকু দা সুপার ডগ’ ও ‘বনের গল্প’। কথকদের উপস্থাপনায় শিশুরা এসময় হারিয়ে যায় গল্পের ভুবনে।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই বিভা সিদ্দিকি বলেন বংকু নামে একটি কুকুরের গল্প। বংকু সবার সঙ্গেই বন্ধুত্ব করে। তার প্রিয় বন্ধু মোঙা নামের একটি বিড়াল। কুকর-বেড়ালের মাঝে বন্ধুত্ব একটি অবাস্তব ব্যাপার হলেও বংকু বিষয়টিকে খুব স্বাভাবিক করে নেয়। একদিন মোঙাকে কিছু দুষ্টু কুকুর ভয় দেখায়। তখন তাদের সঙ্গে ঝগড়া করে বংকু তার বন্ধু মোঙাকে রক্ষা করে। এরপর থেকেই সে পরিচিত হয়ে ওঠে সুপার ডগ হিসেবে। দুষ্টু কুকুরগুলো আর কখনোই মোঙাকে বিরক্ত করেনি।
আসরে গল্প শুনে মুগ্ধ হয়ে দুই খুদে পণ্ডিত উঠে আসে মঞ্চে। তারা বংকুকে নিয়ে তাদের অনুভূতির কথা দর্শক-শ্রোতার সামনে তুলে ধরে।
‘বনের গল্পে’র মাধ্যমে ফারজানা আহমেদ শোনান মাম্বা ও অলস বিড়ালদের গল্প। মাম্বা হচ্ছে একটি দয়ালু বানর, আর অলস বিড়ালরা হচ্ছে রুশি, পুশি ও টুসি। সবসময় মাম্বা এই তিনটি বিড়ালের খবারের ব্যবস্থা করে। তবে একদিন হঠাৎ করেই নিখোঁজ হয়ে যায় মাম্বা। তখন ক্ষুদার্ত রুশি, পুশি ও টুসি বাধ্য হয়ে খাবারের খোঁজে বের হয়। এসময় তাদের সঙ্গে দেখা হয় বক, খরগোশসহ বেশকিছু কর্মঠ প্রাণীর।
গল্প শেষে শিশুদের জন্য ছিল প্রশ্নোত্তর পর্ব। অনুষ্ঠানে আগত বিভিন্ন স্কুলের শিশুরা এসময় লেখকদের মজার মজার সব প্রশ্ন করে।

/এনএস/টিআর/

লাইভ

টপ