হঠাৎ জেঁকে বসেছে শীত, থাকবে আরও ৪-৫ দিন

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০৯:৫৭, জানুয়ারি ০৫, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:০৯, জানুয়ারি ০৫, ২০১৮

শীত এসেছে রাজধানীতেপৌষের শুরুতে শীতের দাপট দেখা না গেলেও বিদায় বেলায় অনেকটা ঘটা করেই জেঁকে বসেছে ঠাণ্ডা। দেশের উত্তরাঞ্চলে আরও আগেই পৌষের উপস্থিতি টের পাওয়া গেছে। তবে রাজধানী ঢাকায় শীতের প্রকোপ ছিল কম। পৌষের শুরুতে ঢাকায় রাতের তাপমাত্রা কিছুটা কমলেও দিনের তাপমাত্রা ছিল স্বাভাবিক। তবে বৃহস্পতিবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা থেকেই ঢাকায় শীতের তীব্রতা বেড়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১০ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিন দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় চুয়াডাঙ্গায় ৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া চট্টগ্রামে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সিলেট বিভাগের শ্রীমঙ্গলে ৮ দশমিক ৬ ডিগ্রি, ময়মনসিংহে ৮ ডিগ্রি, রাজশাহীতে ৮ ডিগ্রি, রংপুরে ৯ ডিগ্রি, খুলনায় ১০ ডিগ্রি এবং বরিশালে ছিল ১০ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) সকাল ৭টায় দেওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, পরবর্তী ৬ ঘণ্টা আকাশ আংশিক মেঘাচ্ছন্ন থাকবে। ভোর ৬টা পর্যন্ত সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  শীত এসেছে রাজধানীতে

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও এর আশপাশের এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। লঘুচাপের প্রভাবে অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও মাঝরি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। দেশের যেসব অঞ্চলের ওপর দিয়ে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে তা আশপাশের এলাকায় বিস্তার লাভ করতে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে,  শুক্রবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত দেশের আকাশ আংশিক মেঘলা থাকতে পারে। দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে। রাজধানীতে এখনও শৈত্যপ্রবাহ শুরু না হলেও পাবনা, চুয়াডাঙ্গা, দিনাজপুর, সৈয়দপুর ও টাঙ্গাইলসহ বিভিন্ন জেলায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়েছে। রাজধানীতেও তাপমাত্রা ক্রমেই কমছে।শীত এসেছে রাজধানীতে

আবহাওয়া অধিফতরের আবহাওয়াবিদ হাফিজুর রহমান শুক্রবার সকালে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘জানুয়ারি মাসে শীত পড়বে, এটা স্বাভাবিক। চট্টগ্রাম বাদে সারাদেশেই শৈত্যপ্রবাহ আছে। এটা আরও ৪-৫ দিন থাকবে। তাপমাত্রা ঢাকায় আর কমার আশঙ্কা নেই।’ 

এদিকে আবহাওয়ার দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে বলা হয়, জানুয়ারি মাসে দেশের উত্তরাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে একটি মাঝারি বা তীব্র ধরনের শৈত্যপ্রবাহ এবং অন্য এলাকায় ২-৩টি মৃদু বা মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।শীত এসেছে রাজধানীতে

এদিকে, শীতের আগমনকে কেন্দ্র করে ব্যাহত হচ্ছে জনজীবন। শীতের প্রকোপে নিম্ন আয়ের মানুষদের পোহাতে হচ্ছে দুর্বিষহ পরিস্থিতি। ঠাণ্ডার কারণে কাজে যেতে পারছেন না অনেকে, আগুন জ্বালিয়ে কিছুটা উষ্ণতার ছোঁয়া পেতে মরিয়া এই মানুষগুলো। কিন্তু পেটের দায় পিছু ছাড়ে না। কাওরানবাজার এলাকায় দিনমজুর মকসুদ মিয়া জানান, ‘ঠাণ্ডায় হাত পা চলে না। কাম করুম ক্যামনে? তয় কাম না করলে খামু ক্যামনে?’ অন্যদিকে রিক্সাচালক সবুজ জানায় দিনের বেলা প্যাসেঞ্জার পেতে সমস্যা হয় না। ঝামেলা হয় সন্ধ্যা নামার পরে। শীতের মধ্যে বাতাসে অনেকেই রিকশায় উঠতে চায় না।'

ছবি: সাজ্জাদ হোসেন

/এসও/এফএস/

লাইভ

টপ