সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে ঢাবিতে কর্মসূচি

Send
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৯:২২, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৩০, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮

ঢাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে মানববন্ধনরাজধানীর সাত কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)-এর অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে রবিবার (১৪ জানুয়ারি) দিনব্যাপী কর্মসূচি পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় অর্ধশত শিক্ষার্থী। ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ’ ব্যানারে সকাল থেকে আন্দোলন করেছে তারা। কিন্তু কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি পূরণের আশ্বাস না পেয়ে সোমবার (১৫ জানুয়ারি) থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য নিজেদের ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

বিশ্ববিদ্যালয় ও আন্দোলনকারীদের সূত্রে জানা যায়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকা রাজধানীর সাত কলেজকে ঢাবির অধিভুক্ত করার প্রতিবাদে ও এই অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে রবিবার সকালে উপাচার্যের কার্যালয় ঘেরাও করে আন্দোলকারী শিক্ষার্থীরা। পরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান৷ 

শিক্ষার্থীরা জানান, আলোচনার সময় উপাচার্য সাত কলেজের ঢাবিতে অধিভুক্ত হওয়ার পটভূমি ও সংকটগুলো নিয়ে আলোচনা করেছেন। তবে তা বাতিলের ব্যাপারে কোনও কথা বলেননি। তাই উপাচার্যের সঙ্গে আলোচনা শেষে দাবি পূরণের জন্য টিএসটির সন্ত্রাস বিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে মানববন্ধন করেন আন্দোলকারীরা৷ দুপুরে কিছু সময় সড়ক অবরোধ করে রাখেন তারা। এরপর দাবি পূরণের যুক্তি তুলে ধরে সমাবেশ কর্মসূচি পালন করেছে ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ’ ব্যানারে আন্দোলনে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীরা। এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত রাজধানীর সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলকারীরা।

এ ব্যাপারে থিয়েটার অ্যান্ড পারফরমেন্স স্টাডিজ বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আহমেদ মুনীর তাঈফ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা যে দাবির লক্ষ্যে আন্দোলন করছি সে দাবি পূরণের ব্যাপারে উপাচার্যের কাছ থেকে কোনও আশ্বাস পাইনি৷ তাই আমরা আগামীকাল থেকে ক্লাস বর্জনের কর্মসূচি নিয়েছি।’ 

আরেকজন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী শুভ্র আহসান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমাদের আন্দোলন সাত কলেজের বিরুদ্ধে না। অধিভুক্তিকরণের ফলে এসব কলেজগুলোকে যেমন বিভিন্ন হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে , তেমনি আমরাও  পরিচয় সংকটে ভুগছি।’ 

এ ব্যাপারে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘সাত কলেজকে ঢাবির অধিভুক্তকরণে সঠিক পরিকল্পনার অভাব ছিল৷ তারপরেও আমরা সব সমস্যা কাটিয়ে উঠব এবং অধিভুক্ত কলেজের শিক্ষার্থীরা ঢাবির কোনও পরিচিতি পাবে না ৷ ঢাবির অধিভুক্ত অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের  মতো এসব কলেজও একইভাবে থাকবে।’

 

 

 

 

/এএইচ/

লাইভ

টপ
x