বিএনপির অবস্থান ম্যাচিউরড, ধারাবাহিকতা বজায় রাখার পরামর্শ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৮, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:০৯, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৮

বাংলা ট্রিবিউন বৈঠকি জিয়া অরফানের ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাগারে গেলেও দলটির যে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি ও আন্দোলনের ধারাবাহিকতা- তা দেখেই বোঝা যায় বিএনপি আগের চেয়ে অনেক ম্যাচিউরড অবস্থানে রয়েছে। বর্তমানে বিএনপি যে ধরনের সংকটে রয়েছে এমন সংকটে একসময় আওয়ামী লীগও ছিল। ফলে বিএনপি তাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি এভাবে এগিয়ে নিলে আন্দোলন আগামীতে আরও বেগবান হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্লেষকরা।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৪টায় রাজধানীর শুক্রাবাদে অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউন আয়োজিত ‘বিএনপি এখন কোন পথে?’ শীর্ষক বৈঠকিতে এসব কথা বলেছেন বক্তারা।

বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমেদ চৌধুরী

বিএনপির আন্দোলনের সঙ্গে মানুষ আছে দাবি করে বাংলা ট্রিবিউন বৈঠকিতে বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমদ চৌধুরী বলেন, ‘বোঝাই যাচ্ছে আন্দোলনে জনগণ স্বতস্ফূর্তভাবে এগিয়ে আসছে। এরা তো সবাই বিএনপির কর্মী নন। তারা বিএনপিকে পছন্দ করেন। তারা চান বিএনপিকে ভোট দিতে। গণজাগরণ সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিনিয়ত মানুষ এই আন্দোলনের সঙ্গে রয়েছে।’

বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমদ চৌধুরী আরও বলেন, ‘এই আন্দোলনটিই শান্তিপূর্ণ। ফলে বলে দেওয়া যায়, এই আন্দোলনটিকে সহিংস রূপ দেওয়ার কোনও লক্ষণ নেই। এটা সত্যিকার অর্থেই শান্তিপূর্ণ। বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপরে নির্দেশনা রয়েছে, কোনওভাবেই উত্তেজিত হয়ে আন্দোলন করা যাবে না। এ কারণেই যতগুলো কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে তার সবগুলোই শান্তিপূর্ণভাবে পালন করা হয়েছে। তবে গত কয়েকদিনে কয়েক হাজার মানুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের যেভাবে গ্রেফতার করা হচ্ছে তাতে বিএনপির নির্বাচনে যাওয়া হয়তো সম্ভব নাও হতে পারে।’

অর্থনীতিবিদ ড. মাহবুবউল্লাহ

এদিকে বিএনপির সমস্যাকে সাময়িক সমস্যা বলে অভিহিত করেছেন অর্থনীতিবিদ ড. মাহবুবউল্লাহ। তিনি বলেন, ‘বিএনপি যে সাময়িক সমস্যায় পড়েছে তা অতিক্রম করা খুব একটা কঠিন হবে না।’

ড. মাহবুবউল্লাহ আরও বলেন, ‘নীতি ও আদর্শে বিশ্বাসী মানুষ অবশ্যই বাংলাদেশের ঘরে আছে। আর এরাই বিএনপির শক্তি। এরাই বিএনপির হাল ধরবে। মানুষের কতগুলি মৌলিক ভাবনা থাকে, বিএনপির সেই ভাবনাই বিএনপিকে টিকিয়ে রাখবে। বর্তমানে বিএনপি শান্তিপূর্ণভাবে যতটা জনমত তৈরি করতে পারছে, তাতেই বোঝা যায় এই জনমত বিএনপির নেতৃত্বকে এগিয়ে রাখবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যদি রাজনীতি বুঝে থাকি, তাহলে বুঝতে হবে রাজনীতির নীতিগত বৈশিষ্ট্য থাকে। রাজনীতি হলো একটি গতিশীল প্রক্রিয়া। এটা কখনও গড়ায়, কখনো হাঁটে, কখনও দৌড়ায়। বিএনপি দলটি অতীতে অনেকবার নানান সমস্যায় পড়েছে। জিয়ার পরে খালেদা জিয়া একজন অরাজনৈতিক নারী ছিলেন। তিনি শক্তভাবে দলটির হাত ধরেছিলেন। একসময় আওয়ামী লীগের বড় বড় নেতারা কেউই কারাগারের বাইরে ছিলেন না।’

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল

এদিকে বিএনপি কখনোই প্রকৃত রাজনৈতিক দল নয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। তিনি বলেন, ‘বিএনপি কখনোই প্রকৃত রাজনৈতিক দল নয়। সাংগঠনিকভাবে বিএনপির দুর্বলতা আছে। বিএনপি বর্তমানে যেদিকে যাচ্ছে তাতে তাদের নৈতিকতা নিয়ে প্রশ্ন আছে।’

বাংলা ট্রিবিউন আয়োজিত ‘বিএনপি এখন কোন পথে?’ শীর্ষক বৈঠকিতে তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমানে যিনি (খালেদা জিয়া) কারাগারে আছেন, তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ শুধু অভিযোগের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়।  তাকে তো রায়ের মধ্যে দিয়ে কারাগারে রাখা হয়েছে। একজন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে ফেরত নেওয়ার জন্য আন্দোলন করা কতখানি নৈতিক ও যৌক্তিক তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। বিএনপিও হয়ত সেটা বোঝে। তারা নিজেদের মধ্যেও এ ব্যাপারে দোদুল্যমান অবস্থায় রয়েছে। বর্তমানে তাদের নৈতিক অবস্থান খুবই দুর্বল।’

সাপ্তাহিক সম্পাদক গোলাম মোর্তোজা

তবে বিএনপি আগের যে কোনও সময়ের চেয়ে এখন ভালো অবস্থানে আছে বলে মনে করেন সাপ্তাহিক’র সম্পাদক গোলাম মোর্তোজা। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপি নৈতিক সংকটে নেই বলে দাবি করেছেন তিনি।

গোলাম মোর্তোজা বলেন, ‘নৈতিকতার বিষয়টি রাজনৈতিক দলগুলোতে খুব একটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল না। তাই যদি হতো, এরশাদসহ প্রায় রাজনৈতিক দলগুলো নৈতিকভাবে রাজনীতি করতে পারত না। কারণ, নেতাকর্মীদের দুর্নীতির ইতিহাস একদিনের নয়। ফলে যে নৈতিক অবস্থানের কথা আমরা বলি, সেই নৈতিক অবস্থায় কখনও কেউ ছিল না। তারই ফলশ্রুতিতে বিএনপি নৈতিক সংকটে নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আবার বিএনপির সাংগঠনিক বিষয়ে যদি বলি, তাতে আমি বলতে পারি- বিএনপির সাংগঠনিক শক্তি এখন যেমন, এমন এর আগে কখনও তেমন ছিল কিনা আমার মনে হয় না। খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর আজ  যদি বিএনপি জ্বালাও-পোড়াও করতো, তাহলে আওয়ামী লীগ বেশ খানিকটা সুবিধাজনক অবস্থায় থাকতো। কিন্তু বিএনপি এখন পর্যন্ত বেশ ম্যাচিউরড আন্দোলন করছে। এটা স্বীকার করতেই হবে।’

বাংলা ট্রিবিউনের হেড অব নিউজ হারুন উর রশীদ

এসময় বাংলা ট্রিবিউনের হেড অব নিউজ হারুন উর রশীদ বলেন, ‘যে কোনও রাজনীতির ভবিষ্যৎ নিয়ে আঁচ করা খুব কঠিন। তবে আমি মনে করি বর্তমানে বিএনপির আন্দোলন সঠিক ট্র্যাকেই আছে।’

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এর আগে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দেশে যে ইলেকশন হয়েছে তা অংশগ্রহণমূলক হয়নি। এটা আওয়ামী লীগ নিজেও স্বীকার করে। বিএনপি যেহেতু সারাদেশে জ্বালাও-পোড়াও ও তাণ্ডব চালিয়েছিল, তার কারণে এর দায় টেকনিক্যালি বিএনপির ওপর চাপাতেও পেরেছিল আওয়ামী লীগ। ফলে একপাক্ষিক নির্বাচনের বিষয়টি ক্যাশ করতে পারেনি বিএনপি। কিন্তু এবার খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানোর পর সেরকম হয়নি। 

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি, পজিটিভ রাজনৈতিক আন্দোলনে ব্যর্থতা বলে কিছু নেই। সফলতা বলতে কি বিএনপিকে ক্ষমতায় যাওয়া বোঝাবে? বিষয়টি তেমন নয়। এখন বিএনপি যে স্টাইলে আন্দোলন করছে এটা বিএনপির সফলতা। পাবলিক সেটা পছন্দ করছে। বিএনপি নাশকতা না করায় সরাকার সেই অর্থে গ্রেফতার অভিযান চালাতে পারছেনা, এটা বিএনপির সফলতা।’ 

এর আগে বৈঠকির শুরুতেই বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমদ চৌধুরী এবং অর্থনীতিবিদ ড. মাহবুবউল্লাহ’র কাছে দুটি প্রশ্ন রাখেন বাংলা ট্রিবিউনের সিনিয়র রিপোর্টার সালমান তারেক শাকিল।

বাংলা ট্রিবিউনের সিনিয়র রিপোর্টার সালমান তারেক শাকিল

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া করাগারে যাওয়ার পরে নানা ধরনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে এবং কর্মসূচিগুলো পালন করা হচ্ছে। এ বিষয়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমেদ চৌধুরীর কাছে আমার প্রশ্ন, ‘খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর বিএনপির আন্দোলনের যে ধারাবাহিকতা দেখতে পারছি তাতে খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন কতটা ত্বরানিত হবে?’

অর্থনীতিবিদ ড. মাহবুবউল্লাহ;র কাছে সালমান তারেক শাকিলের প্রশ্নটি হলো, ‘১৯৭৮ সালের পর থেকে বিএনপি অনেকগুলো ক্রাইসিস মোকাবেলা করেছে, আমরা দেখেছি। জিয়াউর রহমানের হত্যা থেকে শুরু করে ১/১১ সরকারের সময় খালেদা জিয়া কারাগার যাওয়া, এর মধ্যেও দলের ভাঙন পাল্টা-ভাঙনও দেখেছি। ফলে বিএনপির বিগত দিনের সংকটের জায়গা থেকে আজকের এই সংকট ভবিষ্যতে বিএনপির জন্য কতটুকু গুণগত পরিবর্তন আনবে।?’ এসব প্রশ্নে জবাবে বৈঠকিতে কথা বলেছেন আনাম আহমদ চৌধুরী ও ড. মাহবুবউল্লাহ।  

মাহমুদুল হকের সঞ্চালনায় বৈঠকিতে আরও অংশ নিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমেদ চৌধুরী, অর্থনীতিবিদ ড. মাহবুব উল্লাহ, সাপ্তাহিকে’র সম্পাদক গোলাম মোর্তোজা, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বাংলা ট্রিবিউনের হেড অব নিউজ হারুন উর রশীদ ও সিনিয়র রিপোর্টার সালমান তারেক শাকিল। বাংলা ট্রিবিউন স্টুডিও থেকে এ আয়োজন সরাসরি সম্প্রচার করেছে এটিএন নিউজ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ:

বিএনপির নির্বাচনে যাওয়া নাও হতে পারে: ইনাম আহমদ চৌধুরী

বিএনপি সাময়িক সমস্যায় পড়েছে, অতিক্রম করা কঠিন হবে না: ড. মাহবুবউল্লাহ

বিএনপি প্রকৃত রাজনৈতিক দল নয়: মহিবুল হাসান চৌধুরী

বিএনপি নৈতিক সংকটে নেই: গোলাম মোর্তোজা

বিএনপির আন্দোলন সঠিক ট্র্যাকেই আছে: হারুন উর রশীদ



 

 

/আরএআর/এএইচ/

লাইভ

টপ