‘সহকারী থেকে দায়িত্ব পাওয়া প্রধান শিক্ষকরা স্থায়ী হবেন’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:১০, অক্টোবর ১৩, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:২০, অক্টোবর ১৩, ২০১৮





যে সব সহকারী শিক্ষককে প্রধান শিক্ষক হিসেবে চলতি দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তাদের মধ্য থেকে ‘গ্রেটেশন লিস্ট’ অনুযায়ী শিগগিরই পদোন্নতি দিয়ে স্থায়ী করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান।
শনিবার (১৩ অক্টোবর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) মিলনায়তনে সহকারী শিক্ষক থেকে প্রধান শিক্ষক পদে চলতি দায়িত্ব পাওয়া শিক্ষকদের দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।
দীর্ঘদিনের প্রত্যাশিত চলতি দায়িত্বে থাকা প্রধান শিক্ষকদের পদায়নের জন্য এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মন্ত্রীকে সংবর্ধিত করা হয়।
মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘চট্টগ্রাম ও বান্দরবান ছাড়া এরই মধ্যে সারাদেশে ১৭ হাজার সহকারী শিক্ষককে প্রধান শিক্ষক হিসেবে চলতি দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। চট্টগ্রাম ও বান্দরবান জেলায় ৫০০ শিক্ষককে খুব শিগগির প্রধান শিক্ষককের চলতি দায়িত্ব দেওয়া হবে।’
তিনি বলেন, ‘প্রধান শিক্ষকের স্বল্পতার কারণে নেতৃত্ববিহীনভাবে দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয় পরিচালিত হয়ে আসছিল। এতে লেখাপড়ায় বিঘ্ন হচ্ছিল। প্রধান শিক্ষকদের পদ দিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত হওয়ায় নিয়োগবিধি না থাকায় সহকারী শিক্ষকদের পদোন্নতি দেওয়া যাচ্ছিল না।’
মন্ত্রী বলেন, ‘সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে গ্রেটেশন লিস্ট অনুযায়ী সহকারী শিক্ষকদের চলতি দায়িত্বে প্রধান শিক্ষক হিসেবে পদায়ন করা হয়। এখন নিয়োগবিধি অনুমোদিত হয়েছে। অনতিবিলম্বে চলতি দায়িত্বে প্রধান শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষক হিসেবে পদায়ন করা হবে।’
শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সরকার ঘোষণা করেছে দেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালে উন্নত বিশ্বের সারিতে উন্নীত হবে।’ এ স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে হলে আজকের শিশুকে মানসম্মত শিক্ষা দিয়ে উপযুক্ত করে গড়ে তোলার জন্য শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সরকার শিক্ষকদের সামাজিক মর্যাদা দিয়েছে এবং আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করেছে। মানসম্মত দক্ষতা অর্জনের জন্য শিক্ষকদের দেশ-বিদেশে উচ্চতর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে।’
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পদক ও পদোন্নতি বাস্তবায়ন পরিষদের আহ্বায়ক মো. আব্দুল হকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. আবু হেনা মোস্তাফা কামাল বক্তব্য দেন। আরও বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. আতিকুর রহমান আতিক ও সাধারণ সম্পাদক মো. আবুল কাসেম।

/আরএআর/এইচআই/

লাইভ

টপ