‘প্রতিটি বইয়ের জন্য আলাদা ফর্মুলা দিয়ে থ্রিলার লিখতে হয়’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৬:৩৬, নভেম্বর ১০, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৩৯, নভেম্বর ১০, ২০১৮

ঢাকা লিট ফেস্টের তৃতীয় দিনের মধ্য দুপুরে ‘বাংলাদেশের মৌলিক থ্রিলার: জাগরণ ও সম্ভাবনা শীর্ষক’ আলোচনা হয়ে গেল। কসমিক টেন্টের এই সেশনে আলোচক হিসেবে ছিলেন জনপ্রিয় থ্রিলার লেখক মোহাম্মদ নাজিম উদ্দীন এবং অনুবাদক শিবব্রত বর্মন,অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সুমন রহমান। বাংলাদেশে মৌলিক থ্রিলার নিয়ে লেখা শুরু হয় কাজী আনোয়ার হোসন, তার ‘ধ্বংস পাহাড়’ বইয়ের মাধ্যমে। তিনি যদিও অনেক বছর ধরে বাংলা সাহিত্যে থ্রিলার ঘরনার বই নিয়ে কাজ করছেন। বর্তমানে বড় পরিসরে মৌলিক থ্রিলার নিয়ে লেখা শুরু হয় ৫-৬ বছর ধরে।


থ্রিলার কী? এমন প্রশ্নের জবাবে শিবব্রত বর্মন বলেন, ‘কভার দেখেই আমরা বুঝতে পারি এটা একটা থ্রিলার, যেখানে সাসপেন্স ও উত্তেজনা থাকবে তাকে আমরা থ্রিলার করতে পারবো। নাজিম উদ্দীন আবার সেটার বিপক্ষে যুক্তি দিয়ে বলেন, ‘থ্রিলার থেকে ইনভেস্টিকেশন, ক্রাইম এগুলো না থাকলে থ্রিলার বলা যাবে না  থ্রিলার হলো ফর্মুলাভিত্তিক ফিকশন, প্রত্যেক লেখক তার প্রতিটি থ্রিলার বইয়ের জন্যে আগে একটা ডায়াগ্রাম তৈরি করে তারপর লেখা শুরু করেন।’ 
শিবব্রত বর্মন বাংলা সাহিত্যের মৌলিক থ্রিলার নিয়ে বলতে গিয়ে বলেন, ‘আজ থেকে ১০০ বছর আগেই বাংলা সাহিত্যে ক্রাইম থ্রিলার লিখেছেন পাঁচকড়ি দে, হেমেন্দ্রকুমার, প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায় মতো ক্ল্যাসিকাল সাহিত্যিকগণ।’ সেসব সাহিত্যিকদের মধ্যে অনেকের বই প্রচুর বিক্রি হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। থ্রিলারকে লিটারেচার ফিকশন ধরা হয় না কেন বা কেন থ্রিলারকে নিচুভাবে দেখা হয় বিষয়টা নিয়ে বক্তারা আলোচনা করে এটা থেকে উত্তরণের জন্যে থ্রিলার লেখককে সব ধরনের বই পড়ার পরামর্শ দেন নাজিম উদ্দীন। ‘হিমুকে কেন থ্রিলার চরিত্র বলা যাবে না?’ এমন প্রশ্নে দিয়ে ওঠে তর্কের ঝড়। হুমায়ূন ভক্তরা হিমু সিরিজের বইকে থ্রিলার হিসেবে মানতে রাজি না, যদিও একজন বক্তা হিমু সিরিজকে সাইকো থ্রিলার বলতে চান। থ্রিলারের ভাষার পরিবর্তন হয়নি, কাজী আনোয়ার হোসেনের সৃষ্ট ভাষা আর এখনকার জনপ্রিয় নাজিমুদ্দিনের ভাষা ব্যবহার প্রায় একই রয়ে গেছে। ৫০ বছরেও ভাষার কোনও পরিবর্তন হয়নি। থ্রিলার মানে টানটান উত্তেজনায় গল্প বলা, কিন্তু মানুষের জীবনকে আমরা থ্রিলারে পুরোপুরি পাই না। কারণ আমাদের জীবনে উত্থানপতন থাকে। তাই বেশিরভাগ সময় থ্রিলার একটা বয়সের পাঠকদের কাছে জনপ্রিয়।

এফএএন/এনএ/

লাইভ

টপ