সবুজবাগে স্কুলছাত্রীর ‘আত্মহত্যা’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:১৪, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:২৫, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯

লাশ

রাজধানীর সবুজবাগে রিমা আক্তার (১১) নামে পঞ্চম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে বলে দাবি করেছেন তার স্বজনেরা। মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে এ ঘটনা ঘটে। সবুজবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনিবুর রহমান এ খবর নিশ্চিত করেছেন।

রিমা আক্তার তার দুই বোনের সঙ্গে সবুজবাগের মাদারটেক সরকার পাড়ায় ভাড়া বাসায় থাকতো।

প্রতিবেশী বিল্লাল জানান, ঘরে আড়ার সঙ্গে ওড়নায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় রিমাকে ঝুলতে দেখেন তারা। পরে তারা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুপুর দেড়টায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের বড় বোন সুমা আক্তার বলেন, ‘সবুজবাগের মাদারটেক সরকার পাড়ায় ভাড়া বাসায় আমরা তিন বোন থাকি। তিন বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে রিমা সবার ছোট। আমরা দুই বোন গার্মেন্টসে কাজ করি। সকালে রিমাকে বাসায় রেখে আমরা দুই বোন কর্মস্থলে যাই। পরে দুপুরে লাঞ্চের সময় সংবাদ পাই, রিমা মারা গেছে; হাসপাতালে আছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘রিমা মায়ের সঙ্গে ফরিদপুরের সালতা থানার শিহিপুর গ্রামে বাড়িতে থাকতো। সম্প্রতি তাকে ঢাকার স্কুলে ভর্তির জন্য নিয়ে আসি; মাও চলে আসার কথা রয়েছে। বাবা বসুন্ধরায় থেকে রংয়ের কাজ করেন।’

সুমা আক্তার বলেন, ‘রিমা কিছুদিন ধরে স্কুলে ভর্তির জন্য রাগারাগি করছিল। আমি সময় পাচ্ছিলাম না। পরে গতরাতে এ নিয়ে তাকে বকাঝকা করি। সকালে তার জন্য ২০ টাকা রেখে আমরা গার্মেন্টসে চলে যাই। রিমা ছোট বেলা থেকে একটু অভিমানি ছিল।’

সবুজবাগ থানার এসআই মনিবুর রহমান জানান, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে।

এদিকে, মঙ্গলবার রাজধানীর চকবাজার থানার হোসনী দালানের ছিয়া গলির একটি টিনসেট বাসা থেকে সোহেল (২০) নামে এক গার্মেন্টস কর্মীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, ঘরে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় সোহেলকে ঝুলতে দেখে প্রতিবেশীরা পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সোহেলকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে আসলে বিকাল সাড়ে ৫টায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সোহেলের নিকটাত্মীয় না থাকায় এ ব্যাপারে আরও কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া জানিয়েছেন, লাশ ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে।

এর আগে ৩ ডিসেম্বর দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর শান্তি নগরের বাসা থেকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী রিত্রি অধিকারীর (১৫) লাশ উদ্ধার করা হয়। তার স্বজনেরা অভিযোগ করেন, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে ফাইনাল পরীক্ষা দিতে না দেওয়ায় সে আত্মহত্যা করে।

/এআইবি/এআরআর/এমএ/

লাইভ

টপ