দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী ঢাবি ছাত্রকে মারধরের অভিযোগে মানববন্ধন

Send
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:৪৯, মার্চ ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৫৪, মার্চ ২৪, ২০১৯

single pic template-1 copyঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী রবিউল ইসলামকে মারধর এবং তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করার অভিযোগে মানববন্ধন করেছেন অন্য দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা। রবিবার (২৪ মার্চ) দুপুরে কলাভবনের সামনে এই মানববন্ধন করেন তারা। এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনার দাবি জানানো হয় মানববন্ধনে।

এ সময় বিভিন্ন ধরনের দাবি সংবলিত প্ল্যাকার্ড বহন করে এর প্রতিবাদ জানানো হয়। প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল– ‘হামলার দায় প্রশাসন এড়াতে পারে না’, ‘অবিলম্বে রবিউলের ওপর হামলার বিচার চাই’, ‘অবিলম্বে সন্ত্রাসীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে’ ইত্যাদি।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য রবিউল যে আন্দোলন করেছিল সেটা থেকে সবাই শিক্ষা নিতে পারে। ন্যায্য দাবিতে আন্দোলন করার অধিকার সবার আছে। সে হিসেবে রবিউলও আন্দোলন করেছিল। কিন্তু এজন্য তার ওপর হামলা করা হয়েছে। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।’ 

উপস্থিত বক্তারা হল প্রশাসনকে উদ্দেশ করে আরও বলেন, ‘আশা করছি, প্রশাসন খুব শিগগিরই সুনির্দিষ্ট ব্যবস্থা নেবে। অন্যথায় আমরা আরও কঠিন আন্দোলন করতে  বাধ্য হবো।’ 

এ ঘটনার শিকার রবিউল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমি অনশন করেছি এটি আমার বড় অপরাধ। ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত আমি প্রার্থী ছিলাম। এতে নানা অনিয়ম লক্ষ করেছি বলেই অনশনে বসেছিলাম। আমাকে আক্রমণের সময় আশেপাশে কেউ ছিল না।  প্রশাসনকে আমি বারবার বলেছি। তারা কোনও পদক্ষেপ নেয়নি।’ 

প্রসঙ্গত, গত ১৯ মার্চ দুপুরে রবিউল ইসলাম রুবেল নামে এক দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী সূর্য সেন হলে নিজ রুম থেকে সহপাঠীর রুমে যাওয়ার পথে একজন তাকে পথরোধ করে জিজ্ঞাসা করে, সে পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনশন করেছে কিনা। জবাবে রবিউল হ্যাঁ সূচক উত্তর দিলে তাকে মারধর করা হয়। হামলাকারীর নাম জিজ্ঞাসা করলে না বলে পালিয়ে যায়।’ 

এর আগে ডাকসু নির্বাচন বাতিল করে পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনশনে বসেছিল কয়েকজন শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে রবিউলও ছিলেন। 

 

/এসআইআর/এমএএ/

লাইভ

টপ