ফেনীর সেই মাদ্রাসাছাত্রীর চিকিৎসায় ৮ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:৪৯, এপ্রিল ০৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৪৬, এপ্রিল ০৭, ২০১৯

 

চিকিৎসাধীন সেই মাদ্রাসাছাত্রীফেনী জেলার সোনাগাজীর সেই মাদ্রাসাছাত্রীর (১৮) চিকিৎসায় আট সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। ঢামেক  বার্ন ইউনিটের অধ্যাপক ডা. রায়হানা আওয়াল সুমিকে প্রধান করে আট সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। বোর্ডে অন্যদের মধ্যে আছেন অধ্যাপক আবুল কালাম  আজাদ, ডা. সামন্ত লাল সেন ও অন্যরা।

বার্ন ইউনিটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. পার্থ শঙ্কর পাল এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ভুক্তভোগী ছাত্রীর চিকিৎসা ভালোভাবে হচ্ছে কি না সেটাই তদারকি করছে মেডিক্যাল বোর্ড।

উল্লেখ্য, আগুনে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টার শিকার ওই ছাত্রী সোনাগাজী পৌরসভার উত্তর চরছান্দিয়া গ্রামের মাওলানা মুসা মিয়ার মেয়ে। শনিবার (৬ এপ্রিল) সকালে তার আরবি প্রথম পত্রের পরীক্ষা ছিল। তাকে পরীক্ষাকেন্দ্রে নিয়ে যান তার ভাই নোমান। তবে কেন্দ্রের প্রধান ফটকে নোমানকে আটকে দেন নিরাপত্তাকর্মী মোস্তফা। এরপর ছাত্রীটি একাই হেঁটে কেন্দ্রে প্রবেশ করে। এসময় নোমান কেন্দ্রে থেকে একটু দূরে চলে আসেন। এর ১৫-২০ মিনিট পরই মোবাইলে বোনেরর অগ্নিদগ্ধের খবর পান তিনি।  ফের কেন্দ্রে ছুটে গিয়ে বোনকে দগ্ধ অবস্থায় দেখতে পান নোমান।

আগুনে দগ্ধ ছাত্রীকে উদ্ধার করে প্রথমে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে ফেনী সদর হাসপাতালে পাঠান। সেখানে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়।

এর আগে গত ২৭ মার্চ  ওই ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলাকে আটক করে পুলিশ। এ ঘটনায় ছাত্রীর মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় মামলা করেন। 

 আরও পড়ুন:

আমি এই ঘটনার বিচার চাই: সেই মাদ্রাসাছাত্রীর বাবা

ফেনীর সেই মাদ্রাসাছাত্রী শঙ্কামুক্ত নয়

 

 

/এসএসএ/এপিএইচ/

লাইভ

টপ