ঢাবিতে ‘জালিয়াতির মাধ্যমে ভর্তি’ শিক্ষার্থীদের বহিষ্কারের দাবিতে মানববন্ধন

Send
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৪:২২, এপ্রিল ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৩৭, এপ্রিল ১৭, ২০১৯





শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন ঢাবি ভিপি নুরুল হক নুরঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) জালিয়াতির মাধ্যমে অনেকে ভর্তি হয় দাবি করে তাদের বহিষ্কারে মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বুধবার (১৭ এপ্রিল) সকালে কলাভবনের সামনে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ’ শীর্ষক ব্যানারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংহতি জানান ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর। তিনি এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি বরাবর একটি স্বারকলিপিও দিয়েছেন।

মানববন্ধনে ‘জালিয়াতদের বিরুদ্ধে ডাইরেক্ট একশন’, ‘মেধাবীদের পাঠশালায় জালিয়াতদের ঠাঁই নাই’, ‘আমাদের ক্যাম্পাস রাখিব মুক্ত’, ‘দুর্নীতি বন্ধ কর সুষ্ঠু সমৃদ্ধ ঢাবি গড়’, ‘জালিয়াতদের ঠিকানা ঢাবিতে হবে না’  লেখা সম্বলিত প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন ব্যবহার করে শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘যখন প্রশ্নফাঁস হয়, তখন প্রশাসন বলে হয়নি, ডিজিটাল জালিয়াতি হয়েছে। কিন্তু আমাদের প্রশ্ন হলো, তাহলে কি ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমেও এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া যায়? ছাত্রলীগসহ সব সংগঠন থেকে জালিয়াতদের বহিষ্কারের দাবি এসেছে। তাহলে তাদের এখনও কেন বহিষ্কার করা হচ্ছে না? আমরা কি ভেবে নেবো, জালিয়াতদের সঙ্গে প্রশাসনও জড়িত?’

জালিয়াতরা ঐতিহ্যবাহী এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ক্ষুণ্ন করছে উল্লেখ করে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর সংহতি জানিয়ে বলেন, ‘প্রত্যেক ছাত্রের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার ইচ্ছা থাকে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মানুষকে ন্যায়ের পথ দেখায়। পৃথিবীর অনেক দেশের স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। কিন্তু সেসব বিশ্ববিদ্যালয় একটি রাষ্ট্রের জন্ম দিতে পারেনি। এই বিশ্ববিদ্যালয় একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের জন্ম দিয়েছে। আর সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশ্নফাঁস ও জালিয়াতির মাধ্যমে অনেকে ভর্তি হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ক্ষুণ্ন করেছে।’

কালক্ষেপণ না করে শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিতে প্রশাসনের প্রাতি আহ্বান জানান ডাকসুর ভিপি। তিনি বলেন ‘সিন্ডিকেট মিটিংয়ে সিদ্ধান্তের মাধ্যমে এই জালিয়াতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থান নেওয়া হোক।’

এদিকে, দুপুর দেড়টার দিকে জাতিয়াতদের বহিষ্কারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য ড. আখতারুজ্জামান বরাবর স্বারকলিপি দেন নুরুল হক নুর।

সমাজবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আকরাম হোসেনের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন— ডাকসুর স্বতন্ত্রজোট প্যানেলের ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক ফারুক হোসেন প্রমুখ।

/আইএ/

লাইভ

টপ