প্রতিবন্ধীদের চোখের স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণকারীদের সমীক্ষা নিয়ে কর্মশালা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:৩৫, এপ্রিল ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৩৭, এপ্রিল ১৭, ২০১৯

সাইটসেভার্সের কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীরা

প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর চোখের স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণকারীদের সমীক্ষা নিয়ে ডিজ্যাবিলিটি ডেটা ডিজএগ্রিগেশন (ডিডিডি) বেজলাইন ফাইন্ডিং শেয়ারিং শীর্ষক একটি কর্মশালার আয়োজিত হয়েছে। ইউকে এইডের অর্থায়নে করা এই সমীক্ষার ফলাফল নিয়ে বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাজধানীর একটি হোটেলে কর্মশালাটির আয়োজন করে সাইটসেভার্স।  

আয়োজকদের পক্ষ থেকে বলা হয়, বেইজলাইন সমীক্ষার উদ্দেশ্য ছিল প্রকল্প বাস্তবায়নে নিয়োজিত হাসপাতালগুলোর চক্ষু ক্যাম্পে চোখের নানারকম সমস্যায় চিকিৎসাসেবা গ্রহণকারীদের মধ্যে প্রতিবন্ধীদের সংখ্যা বের করা। সমীক্ষায় প্রাথমিকভাবে ৭ হাজার ৭৯ জনকে নমুনা হিসেবে নেওয়া হয়।  এতে দেখা গেছে, সেবাগ্রহীতাদের ৫০ শতাংশ হলো প্রতিবন্ধী এবং দৃষ্টি প্রতিবন্ধিতা বাদ দিলে ২৭ শতাংশ প্রতিবন্ধী আছে, যাদের মধ্যে অন্যান্য প্রতিবন্ধিতা বিদ্যমান। উভয়ক্ষেত্রে পুরুষের তুলনায় নারীর সংখ্যাই বেশি।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের পরিচালক ( অর্থ ও প্রশাসন) ও যুগ্ম সচিব এস কে হামিম হাসান। তিনি বলেন, সাইটসেভার্স বাংলাদেশে দরিদ্র ও সুবিধা বঞ্চিত মানুষের মাঝে চক্ষুসেবা দিয়ে প্রতিরোধযোগ্য দৃষ্টিহীনতা দূর করাসহ  প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা অপ্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মতোই সমান অধিকার ভোগ করবে এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার ও  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে উল্লেখ্যযোগ্য পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। শিক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়নের পাশাপাশি স্বাস্থ্যসেবায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের প্রবেশগম্যতা একটি বিরাট চ্যালেঞ্জ। যে কারণে অনেক প্রতিবন্ধী মানুষ স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণ করতে পারে না। কতজন প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বর্তমান স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সরকারি বা বেসরকারি হাসপাতালে স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণ করছে তা জানাটা অনেক জরুরি। এটি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে সহায়তা করবে।

সমাজসেবা অধিদফতরের প্রোগ্রাম পরিচালক ও উপসচিব ডা. আশরাফী আহমেদ বলেন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সংখ্যা নিয়ে নানা রকম মতামত রয়েছে। এই বিষয়টি সমাধানের লক্ষ্যে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে সমাজসেবা অধিদফতর প্রতিবন্ধিতা সনাক্তকরণ জরিপ কার্যক্রম ২০১৪ সালে চালু করে। তবে দেশে শতকরা কতজন প্রতিবন্ধী মানুষ বিভিন্ন সেবা গ্রহণ করছে তার সুনির্দিষ্ট কোনও সমীক্ষা আমাদের জানা নেই। সাইটসেভার্সের এই অভিজ্ঞতা সরকারি  ও বেসরকারি  পর্যায়ে সেবা প্রদানকরী সংস্থার প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের তথ্য রাখার ক্ষেত্রে সহায়ক হবে।

সভায় সভাপতিত্ব করেন সাইটসেভার্সের কান্ট্রি ডিরেক্টর খন্দকার আরিফুল ইসলাম।

 

/এসও/টিএন/

লাইভ

টপ