পাঁচ জেলায় দুদকের অভিযান

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৫৫, এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৮, এপ্রিল ১৮, ২০১৯





কুষ্টিয়া সিভিল সার্জন অফিস, বগুড়া যুব উন্নয়ন অধিদফতর, রাঙামাটি জেলা বন বিভাগ, নীলফামারী বিআরটিএ ও পঞ্চগড় আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে পৃথক অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) এ অভিযান চালানো হয় বলে জানিয়েছেন দুদক উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য।
তিনি জানান, অভিযোগকেন্দ্রে (হটলাইন ‘১০৬’ নম্বরে) অভিযোগ পাওয়ার পর দুদক প্রধান কার্যালয়ের অনুমতি নিয়ে এসব অভিযান চালানো হয়।
প্রণব কুমার ভট্টাচার্য জানান, কুষ্টিয়া সিভিল সার্জন অফিসে স্বাস্থ্যগত ছাড়পত্র প্রদানে অনিয়ম ও ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে অভিযান চালায় দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের একটি টিম। বিদেশ গমনেচ্ছু শ্রমিক ও চাকরিপ্রার্থীদের ছাড়পত্র প্রদানের ক্ষেত্রে রেজিস্টার অনুসরণ না করার প্রমাণ পায় দুদক টিম। সেবাপ্রার্থীরা অভিযোগ করেন, স্বাস্থ্য সনদের ৩০০ টাকা করে ঘুষ নেওয়া হয়। এই সিভিল সার্জন অফিসের দুর্নীতির বিষয়ে একটি প্রতিবেদন শিগগিরই দুদক প্রধান কার্যালয়ে দাখিল করবে দুদক কুষ্টিয়ার সমন্বিত জেলা কার্যালয়।
দুর্নীতি, অনিয়মের অভিযোগে বগুড়া যুব উন্নয়ন অধিদফতরে অভিযান চালায় দুদক বগুড়ার সমন্বিত জেলা কার্যালয়। অভিযানের সময় প্রশিক্ষণসংক্রান্ত নথির যথার্থতা যাচাই করা হয়।
কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দায়িত্বে অবহেলা এবং দুর্নীতির ফলে বনাঞ্চল বেদখল হয়ে যাওয়ার অভিযোগে রাঙামাটি জেলায় বন বিভাগ কার্যালয়ে অভিযান চালায় দুদক। সমন্বিত জেলা কার্যালয় রাঙামাটির একটি টিম এ অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় ‘দুর্নীতিবাজ হিসেবে চিহ্নিত’ কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে সতর্ক করা হয়।
ড্রাইভিং লাইসেন্স, গাড়ির ফিটনেস সার্টিফিকেট, লাইসেন্স নবায়ন, গাড়ির মালিকানা পরিবর্তন, ডিজিটাল নাম্বার প্লেটসহ সেবাপ্রাপ্তিতে ঘুষ-লেনদেন ও দালালদের দৌরাত্ম্যের অভিযোগের নীলফামারী বিআরটিএ-তে অভিযান চালায় দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিট। অভিযানের সময় দুই দালালকে অর্থদণ্ড করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।
এছাড়া সেবা প্রদানে অনিয়ম ও দালালদের দৌরাত্ম্যের অভিযোগে পঞ্চগড় আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে অভিযান চালায় দুদক।

/ডিএস/এইচআই/

লাইভ

টপ