পক্ষাঘাতগ্রস্তদের সহায়তায় ১৫ দিনব্যাপী স্ক্র্যাপ মেটাল ভাস্কর্য প্রদর্শনী

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:০০, এপ্রিল ২০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০৩, এপ্রিল ২০, ২০১৯

ভাস্কর্য প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. গওহর রিজভী ও অন্যরারাজধানীর গুলশান সোসাইটি লেক পার্কে শুরু হলো ‘জল ইস্পাতের ঐক্যতান’ শীর্ষক স্ক্র্যাপ মেটাল ভাস্কর্য প্রদর্শনী। এতে স্থান পেয়েছে ফেলে দেওয়া ধাতব টুকরো ও প্রাণীর সমন্বয়ে ভাস্কর আরহাম আল হোসেনের বানানো ভাস্কর্য। শনিবার (২০ এপ্রিল) বিকাল ৪টায় রাজধানীর গুলশান-২ নম্বরের লেক পার্কে এর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. গওহর রিজভী। যৌথভাবে এর আয়োজন করেছে গুলশান সোসাইটি ও সিআরপি।

সিআরপিতে চিকিৎসারত পক্ষাঘাতগ্রস্ত রোগীদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. গওহর রিজভী বলেন, ‘আপনারা প্রতিবন্ধী নন, আমাদের সমাজ আপনাদের প্রতিবন্ধী করে রেখেছে। আমি ৪০ বছর শিক্ষকতা করে দেখেছি, প্রতিবন্ধীরাও সুযোগ পেলে নিজেদের মেধার বিকাশ ঘটাতে পারেন। প্রতিবন্ধীদের মেধা বিকাশের সুযোগ দেওয়া সমাজের দায়িত্ব। আমরা যদি তাদের জন্য আরও কাজ করি, প্রতিবন্ধীদের জন্য আরও স্কুল-কলেজ করি, তাহলেই তারা আমাদের সমাজ গঠনে অনবদ্য ভূমিকা রাখবে।’

পক্ষাঘাতগ্রস্তদের নিয়ে কাজ করায় সিআরপির প্রতিষ্ঠাতা ভ্যালেরি টেলরকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান গওহর রিজভী। তার কথায়, ‘প্রায় ৫০ বছর ধরে বাংলাদেশের পক্ষাঘাতগ্রস্তদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন ভ্যালেরি টেলর। প্রায় ১০ বছর আগে একটি ভবন ধসে পড়লে তার সঙ্গে আমার প্রথম দেখা হয়। তখন তার কাজের গুরুত্ব ও বঞ্চিতদের জন্য কিছু করার অদম্য স্পৃহার ব্যাপারে জানতে পারি।’

এ উদ্যোগ প্রতিবন্ধীদের সহায়তা করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারসন ডিকসন। তিনি মনে করেন, সৃজনশীলতা কাজে লাগিয়ে ধাতুর টুকরো থেকে ভাস্কর্য তৈরির মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত প্রতিবন্ধীদের জন্য কাজ করা প্রশংসার দাবিদার।

সভাপতিত্ব করেন গুলশান সোসাইটির সভাপতি শাখাওয়াত আবু খায়ের মোহাম্মদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন গুলশান সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার শুক্লা সারওয়াত সিরাজ। তারা জানিয়েছেন, মেধা বিকাশে সহায়তার অংশ হিসেবে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। এতে বিক্রি হওয়া ভাস্কর্যের অর্থ সিআরপির কল্যাণ তহবিলে জমা হবে।

১৫ দিনের প্রদর্শনী ‘জল ইস্পাতের ঐক্যতান’ চলবে ৪ মে পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত সাড়ে ৭টা। সবার জন্য উন্মুক্ত।

/সিএ/জেএইচ/

লাইভ

টপ