ঢামেকে যুদ্ধাপরাধের দায়ে বন্দি একজনসহ তিন কয়েদির মৃত্যু

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:৩৮, এপ্রিল ২২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৫৫, এপ্রিল ২২, ২০১৯

ঢামেকঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন কয়েদি মারা গেছেন।  তাদের মধ্যে যুদ্ধাপরাধের দায়ে বন্দি এক কয়েদি রয়েছেন। রবিবার (২১ এপ্রিল) রাতে তারা মারা যান। কারারক্ষী রবিউল রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মৃত ব্যক্তিরা হচ্ছেন–  মো. জালাল উদ্দীন (৭০),  মো. জামিরুল ইসলাম মানিক (৩৫) ও মো. সজীব (৩০)।

সোমবার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব অরুন কৃষ্ণ পালের উপস্থিতিতে শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মশিউর রহমান তাদের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করেন। পরে বিকালে তাদের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়।

তাদের মৃত্যু প্রসঙ্গে কারারক্ষী রবিউল রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘গত ২০ এপ্রিল যুদ্ধাপরাধের দায়ে বন্দি (হাজতি নম্বর ৪০৩২৫/১৮) মো. জালাল উদ্দীনকে (৭০) অসুস্থ অবস্থায় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার (কেরানীগঞ্জ) থেকে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার রাতে তিনি মারা যান। তিনি ময়মনসিংহ জেলার কোতয়ালি থানার নিমতলা গ্রামের মৃত বশির উদ্দিন মণ্ডলের ছেলে।’

অপর দিকে,  একই দিন রাতে কাফরুল থানার একটি মামলায় কারাবন্দি (হাজতি -১৬৯১৭/১৯) মো. জামিরুল ইসলাম মানিক (৩৫) মারা যান। তাকে গত ১৭ এপ্রিল ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তিনি দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর থানার চৌধুরী ভাঙ্গাপাড়া গ্রামের আবু তালেবের ছেলে।

অন্যদিকে, একাধিক মাদক মামলায় কারাবন্দি হাজতি মো. সজীব (৩০) একই দিন রাতে মারা যায়। তার বাসা গেণ্ডারিয়া থানার এসকে দাস রোডের মাজার গলি। তার বাবার নাম সন্দেশ মণ্ডল।

 

/এআইবি/এমএএ/

লাইভ

টপ