বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের কর্মকর্তা হত্যার ঘটনায় ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৩:৩৫, এপ্রিল ২৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৩৬, এপ্রিল ২৫, ২০১৯

মৃত্যুদণ্ডঢাকা বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা আমিনুল হক খাদেম ওরফে আনিস খাদেমকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় ছয়জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) ঢাকার ৪ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আব্দুর রহমান সরদার এ রায় ঘোষণা করেন। অপর এক আসামি আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন বাবুকে (পলাতক) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডও করা হয়।

মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত আসামিরা হলেন- শহিদুর রহমান খাদেম, সোহেল, মাহবুব আলম লিটন (পলাতক), শেখ শামীম আহম্মেদ (পলাতক), জুয়েল (পলাতক) ও কামাল হোসেন বিপ্লব (পলাতক)।

এদিকে আজগর হোসেন রানা নামে অপর এক আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় বিচারক তাকে খালাস দেন।

আদালত পলাতক আসামির বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা জারি করার আদেশ দেন। পাশাপাশি অন্য আসামিদের সাজা পরোয়ানা ইস্যু করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল কাদের পাটোয়ারি বাংলা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ভিকটিম আমিনুল হক খাদেম ওরফে আনিস খাদেমের সঙ্গে মামলার অন্যতম আসামি শহিদুর রহমান খাদেমের জমি নিয়ে বিরোধ ছিলো। এ ঘটনায় তাদের দু’জনের মধ্যে বিভিন্ন মামলা- মোকদ্দমাও হয়। এর জের ধরে ২০০৯ সালের ৩ মে আহমদুল্লাহ স্টেটের ক্ষমতা দখলকে কেন্দ্র করে মালিবাগ হোল্ডিংয়ের পশ্চিম পাশে পরিকল্পিতভাবে আমিনুল হক খাদেম ওরফে আনিস খাদেমকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ঘটনার পর দিন তার ছেলে সাইদুল হক খাদেম রাজধানীর মতিঝিল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে ২০০৯ সালের ৩০ নভেম্বর আটজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন র‌্যাব-৩ এর সদস্য মজিবুর রহমান।

২০১৪ সালের ৮ জুন আসামিদের বিরুদ্ধে পেনাল কোডের ৩০২/৩৪/৩৭৯/৪১১ ধারায় অভিযোগ গঠন করেন আদালত। মামলায় বিভিন্ন সময়ে ১৭ জন সাক্ষীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন আদালত। অভিযুক্ত আসামি ৮ জনই আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন বলে রায় ঘোষণা করেন বিচারক।

 

/টিএইচ/টিটি/

লাইভ

টপ