ওয়াসার পানির মানের প্রতিবেদন জনসম্মুখে প্রকাশের দাবি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:১১, এপ্রিল ২৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৩, এপ্রিল ২৫, ২০১৯

পবার মানববন্ধনওয়াসার নিজস্ব ল্যাবে পরীক্ষাকৃত পানির মানের প্রতিবেদন জনসমক্ষে প্রকাশের দাবি জানিয়েছে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনসহ (পবা) সমমনা সংগঠনগুলো। বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) কাওরানবাজারের ওয়াসা ভবনের সামনে এক মানববন্ধনে এই দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ঢাকা মহানগরীর মানুষকে মানসম্মত পানি সরবরাহ করার জন্য বিগত বছরগুলোতে ওয়াসা হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করেছে। ওয়াসার পানির গুণগত মান নিয়মিত ভাবে এবং অভিযোগের ভিত্তিতে পরীক্ষা করার জন্য ওয়াসার নিজস্ব ল্যাবরেটরি মোহাম্মদপুরের আসাদ গেটে চালু আছে। এই ল্যাব ব্যবস্থাপনায় মোটা অংকের টাকা খরচ হয়। কিন্তু, ওয়াসার পানির গুণগতমান মনিটরিং ব্যবস্থা কতটুকু কার্যকর তা দুর্গন্ধযুক্ত পানি ও মানুষের ক্ষোভেই উপলব্ধি করা যায়!

অভিযোগ রয়েছে, শতভাগ পরিশোধন না করেই নগরবাসীকে দূষিত পানি খাওয়াচ্ছে ওয়াসা। যার ফলে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ময়লাসহ দুর্গন্ধযুক্ত পানি খাচ্ছেন নগরবাসী। সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্যকর্মীর দাবি পেটের পীড়াসহ নানা ধরনের জটিল রোগের প্রাদুর্ভাব হয় দুর্গন্ধযুক্ত এই অনিরাপদ পানি থেকেই।

তারা আরও বলেন, ওয়াসা শতকরা প্রায় ৮০ ভাগ ভূগর্ভস্থ এবং বাকি ২০ ভাগ ভূ-উপরস্থ পানি সংগ্রহ করে এবং তা পরিশোধনের মাধ্যমে গ্রাহকের কাছে পৌঁছায়। ভূ-গর্ভস্থ  পানি খুবই সুপেয় তাই সাধারণভাবে ধারণা করাই যায় ওয়াসার পানি খুবই ভালো। কিন্তু সার্বিক অব্যাবস্থাপনা ও বিশুদ্ধতার মান মনিটরিং-এর অভাবে ওয়াসা কর্তৃক সরবরাহকৃত পানির গুণগত মান এতো নিম্ন পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছে যে তা একেবারই পান করার মতো নয়। পানির মান মনিটরিং ব্যবস্থা কার্যকর করার অন্যতম প্রাথমিক ধাপ ওয়াসার নিজস্ব ল্যাবে পরীক্ষাকৃত ফলাফল জনসমক্ষে প্রকাশ করা। সেই সঙ্গে সাইন্স ল্যাবরেটরি, বিজ্ঞান ও গবেষণাগার, বুয়েট, আইসিডিডিআরবিসহ অন্যান্য ল্যাবে পরীক্ষা করা এবং ভবিষ্যতে নিয়মিতভাবে তা প্রকাশ করা।

এসময় সংগঠনের পক্ষ থেকে চার দফা সুপারিশ তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে আছে- ওয়াসার নিজস্ব ল্যাবে পরীক্ষাকৃত পানির মানের প্রতিবেদন জনসমক্ষে নিয়মিতভাবে প্রকাশ করতে হবে, ওয়াসার পানির গুণগত মান কঠোর পর্যবেক্ষণের আওতায় আনতে হবে, ওয়াসার ডিপ-টিউবওয়েলের মুখে নয়, পানির বিশুদ্ধতা মাপতে হবে গ্রাহকের বাসার পানির ট্যাংকে, প্রকল্প গ্রহণের ধান্দা না করে পানির গুণগত মানের দিকে নজর দিতে হবে।

মানববন্ধনে পবার চেয়ারম্যান জনাব আবু নাসের খানের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ড. কামরুজ্জামান, বাংলাদেশ নিরাপদ পানি আন্দোলনের (বানিপা) সভাপতি প্রকৌশলী মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, নাগরিক সমাজের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন আহমেদ, বিসিএইচআরডি এর নির্বাহী মাহবুব হক, পবার অর্গানাইজার ও সবুজ ছাতা হেলথ কেয়ার লি. এর এমডি মো. শরিফ্জ্জুামান খান সাঈদ প্রমুখ।

/এসও/টিএন/

লাইভ

টপ