ফের বার্ন ইউনিটে আবুল বাজানদার

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৩:৩৭, মে ২১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৩৭, মে ২১, ২০১৯

চিকিৎসার জন্য ফের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে ভর্তি হয়েছে ‘বৃক্ষমানব’ খ্যাত আবুল বাজানদার। রবিবার (১৯ মে) দুপুরে তাকে বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।



এ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্তলাল সেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আবুল বাজানদারকে অনেক আগে আসতে বলেছিলাম। তখন ওর হাতের এগুলো ছোট ছিল। এখন বড় হয়ে যাওয়ার পর আবার এসেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আবুল বাজানদার আগে এখানে কী করে গেছে তা বলতে চাই না। আমরা রোগী হিসেবে তাকে ট্রিট করছি।’

ডা. সামন্তলাল সেন বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি এখনও বলছি, এই রোগ শতভাগ কিউর হবে না।’

ঢাকা মেডিক্যালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সহযোগী অধ্যাপক ডা.তানভীর আহমেদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আবুল বাজানদার আসার পর আমরা তাকে ভর্তি করেছি। তার হাতের অপারেশন লাগবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আবুল বাজানদারের চিকিৎসা করা হবে। কিন্তু আগের মতো ফ্রি করা হবে কিনা তা বলতে পারবো না। তবে, হাসপাতাল থেকে কিছু টেস্ট ফ্রি করা যায় সেটা সে পাবে।’

আবুল বাজানদার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ডা. সামন্তলাল সেন স্যারকে ফোন দিয়েছিলাম। স্যার, আসতে বলায় ভর্তি হয়েছি।’

খুলনার আবুল বাজানদার ১০ বছর ধরে হাত-পায়ে শেকড়ের মতো গজিয়ে ওঠা বিরল এক জেনেটিক রোগে ভুগছেন। ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে তাকে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসার জন্য গঠিত হয় পাঁচ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার চিকিৎসার সব খরচ রাষ্ট্রীয়ভাবে করার নির্দেশ দেন। গত দু’বছরে তার হাত-পায়ে ২৫ দফা অস্ত্রোপচার চালানো হয়। কিন্তু চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ এনে একপর্যায়ে হাসপাতাল থেকে গ্রামের বাড়ি চলে যান আবুল বাজানদার।

/টিওয়াই/এআর/

লাইভ

টপ