‘সচেতন হতে হতে নদী থাকবে তো?’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:৪৫, জুন ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:০৬, জুন ১১, ২০১৯

হারুন উর রশীদবাংলা ট্রিবিউনের নির্বাহী সম্পাদক হারুন উর রশীদ নদীরক্ষায় বিভিন্ন উদ্যোগের দীর্ঘসূত্রতার প্রতি ইঙ্গিত করে বলেছেন, ‘নদীরক্ষায় বিভিন্ন মহলে ইদানীং সচেতনতা দেখা যাচ্ছে। কিন্তু সচেতন হতে হতে নদী থাকবে তো? ক্ষমতাবানরা সব সময় চান নদী দখল করে ব্যক্তিগত অর্থনৈতিক উন্নয়ন। কিন্তু তারা এটি বুঝতে চান না যে, যখন একটি গাছ থাকবে না, একটি নদী থাকবে না, তখন বেঁচে থাকার উপকরণগুলোও থাকবে না। তারা বুঝতে পারেন না যে, টাকা কিন্তু খাওয়া যায় না।’ দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউনের আয়োজনে ‘নদী ও ধর্ম’ শীর্ষক বৈঠকিতে তিনি এসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার (১১ জুন) বিকালে রাজধানীর পান্থপথে বাংলা ট্রিবিউন স্টুডিওতে আয়োজিত হয় সাপ্তাহিক এই আয়োজন।

নদীরক্ষায় সাংবাদিক ও তরুণদের এগিয়ে আসা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সাংবাদিকরা নদী নিয়ে ইদানীং খুব আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। এর অবদান আমি আইনুন নিশাত স্যারদের দিতে চাই। তারা ধরিয়ে দিয়েছেন নদী দখলের মূল কারণ। নদী দখলের সঙ্গে ক্ষমতার একটি সম্পর্ক আমরা সাংবাদিকরা সব সময় দেখেছি। সেই জায়গাগুলো সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষকে বোঝানোর চেষ্টা করা হয়েছে। একদিকে যেমন নদী দখল হয়ে যাচ্ছে, নদীকে মেরে ফেলা হচ্ছে, অন্যদিকে কিন্তু নদীকে ভালোবাসার মানুষও বাড়ছে। বিশেষ করে আমি সাংবাদিক হিসেবে দেখি, তরুণরা নদী নিয়ে ভাবেন। নদী দেখতে দলবেঁধে তরুণরা যাচ্ছেন, গ্রুপ তৈরি হচ্ছে। এটি কিন্তু অত্যন্ত ইতিবাচক দিক। আরেকটি বড় ইতিবাচক হলো, ঢাকায় নদী নিয়ে বড় সম্মেলনটি হবে। নদীরক্ষায় সবাই এগিয়ে আসছেন।’

মুন্নী সাহার সঞ্চালনায় আজকের বৈঠকিতে আরও অংশ নিয়েছেন– ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরেটাস প্রফেসর এবং নদী ও পানিসম্পদ বিষয়ক গবেষক ড. আইনুন নিশাত, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক একেএম শাহনেওয়াজ, সাউথ অ্যান্ড সাউথ-ইস্ট এশিয়ান অ্যাসোসিয়েশন ফর দ্য স্টাডি অব কালচার অ্যান্ড রিলিজিয়নের (এসএসইএএসআর) সভাপতি অমরজিভা লোচান, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশের (ইউল্যাব) অধ্যাপক শাহনাজ হুসনে জাহান ও অধ্যাপক সুমন রহমান।

এ বৈঠকি সরাসরি সম্প্রচার করেছে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন নিউজ। পাশাপাশি বাংলা ট্রিবিউনের ফেসবুক ও হোমপেজে লাইভ দেখা গেছে এ আয়োজন। ইউল্যাবের সহযোগিতায় বৈঠকিটি আয়োজিত হয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘মানবসভ্যতা ধ্বংস হওয়ার অন্যতম কারণ নদীর গতি পরিবর্তন’

                 ‘ধর্মকে নানা দৃষ্টিকোণ থেকে পাঠ করা যায় 

                 ‘নদীর তীর ঘেঁষেই সভ্যতার বিকাশ হয়েছে’ 

                  শুরু হলো ‘নদী ও ধর্ম’ শীর্ষক বৈঠকি

/এসও/এমএএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ