আগুনে পুড়লো কল্যাণপুরের পেট্রোল পাম্প, লরি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৯, জুন ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৬, জুন ১৮, ২০১৯



ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের দক্ষতায় এবং স্থানীয়দের সহযোগিতায় বড় কোনও ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াই আগুন নিভিয়ে ফেলা সম্ভব হয়েছেআগুনে রাজধানীর কল্যাণপুরের রাজিয়া পেট্রোল পাম্পের ট্যাংকের তেল ও আসবাবপত্র পুড়ে গেছে। এছাড়াও পাম্পে থাকা একটি তেলবাহী লরি ও মাইক্রোবাস পুড়েছে। অগ্নিকাণ্ডের সময় একটি লরি থেকে পাম্পের ট্যাংকারে তেল নামানোর হচ্ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, এর জেরে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।
মঙ্গলবার (১৮ জুন) বিকাল ৫টা ২৫ মিনিটের দিকে পেট্রোল পাম্পটিতে আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট প্রায় আধাঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিভিয়ে ফেলে।
ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের নিয়ন্ত্রণকক্ষের কর্তব্যরত কর্মকর্তা রাসেল সিকদার বাংলা ট্রিবিউনকে আগুন নেভার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, ‘অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে প্রথমেই লালমাটিয়া ও মিরপুর-১০ নম্বর এলাকা থেকে আমাদের ৬টি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। এরপর আরও ৪টি ইউনিট তাদের সঙ্গে যোগ দেয়। সন্ধ্যা ৬টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এরপর ধীরে ধীরে আগুন নিভিয়ে ফেলা হয়।’
রাসেল সিকদার বলেন, ‘পেট্রোলে আগুন লাগায় তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। তবে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের দক্ষতায় এবং স্থানীয়দের সহযোগিতায় বড় কোনও ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াই আগুন নিভিয়ে ফেলা সম্ভব হয়েছে।’
ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা বলেন, পাম্পটি খোলা স্থানে হলেও এর আশে পাশে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভবন, হাসপাতাল ও ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ছিল। এতে ক্ষয়ক্ষতি বাড়ার আশঙ্কা ছিল।
তবে আগুনের সূত্রপাত কীভাবে, প্রাথমিকভাবে তা জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস। তদন্তের পর অগ্নিকাণ্ডের কারণ জানা যাবে বলে জানান রাসেল।
আগুন লাগার পর পাম্পের স্টাফ, স্থানীয় ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের সদস্যরা প্রথমে পানি দিয়ে নেভানোর চেষ্টা করেন। তবে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এতে তাপের কারণে সাধারণ মানুষ কাছে ভিড়তে পারেনি। এসময় মিরপুর সড়কের একপাশের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ট্রাফিক পুলিশ ও শেরেবাংলা নগর ও মিরপুর মডেল থানা পুলিশ ফায়ার সার্ভিসকে সহযোগিতা করে।
প্রত্যক্ষদর্শী হেদায়েত হোসেন বলেন, ‘আমি পাম্পের পাশ দিয়ে হেঁটে কল্যাণপুরের দিকে যাচ্ছিলাম। তখন পাম্পের ভেতরে হঠাৎ একটি লরিতে আগুন জ্বলে উঠতে দেখি। এসময় পাম্প থেকে কয়েকটি গাড়ি বের হয়, কয়েকজন মানুষও দৌড়ে বের হন। দ্রুত আগুন দাউ দাউ করে জ্বলে ওঠে।’
আগুন নিভে যাওয়ার পর পাম্পের ভেতরে একটি লরি, মাইক্রোবাস ও প্রাইভেটকার পোড়া অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা গেছে।
শেরেবাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানে আলম মুন্সী বলেন, ‘ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসকে সহযোগিতার জন্য আমাদের পুলিশ সদস্যরা সেখানে ছিল। সড়কের যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।’

/এআরআর/এইচআই/

লাইভ

টপ