বনশ্রীতে দখলবিরোধী অভিযানের নামে দোকানিদের ওপর হামলার অভিযোগ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:০৬, জুন ২১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৩৩, জুন ২১, ২০১৯

দোকান ভাঙচুর করা হচ্ছেফুটপাত দখলমুক্ত করতে গিয়ে রাজধানীর দক্ষিণ বনশ্রীর দোকান মালিকদের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে ‘দক্ষিণ বনশ্রী ইয়ুথ সোসাইটি’র বিরুদ্ধে। দোকানপাট ভাঙচুরের পাশাপাশি মালামালও ভাঙচুর করা হয়েছে বলে দোকান মালিকেরা অভিযোগ করেছেন। শুক্রবার (২১ জুন) সকালে কাজিবাড়ি রোডে এ ঘটনা ঘটে।

দোকান মালিকদের অভিযোগ, সকাল ১০টার পর কিছু লোক হঠাৎ দোকানে হামলা চালায়। তারা ভাঙচুর করে দোকানের মালামাল তছনছ করে দেয়। কর্মচারীদের মারধর ও গালমন্দ করে। আতঙ্ক সৃষ্টি করে। হামলার খণ্ডচিত্র ও ভিডিও ফুটেজ অনেকের মোবাইল ও দোকানের সিসি ক্যামেরায় রয়েছে।

খানদানী রেস্টুরেন্টের মালিক মিনু মিয়ার ছেলে জাকির হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমি তো ফুটপাতের ব্যবসায়ী না। ফুটপাত দখল করলে মালিক সমিতি থেকে নোটিশ করতে পারে। প্রশাসন বা সিটি করপোরেশন অভিযান চালাতে পারে। তারা তো সন্ত্রাসীদের মতো হামলা করতে পারে না। দোকানদারদের মারধর করতে পারে না। এই ক্ষমতা তারা কোথায় পেলো?’

ফুটপাতের ওপর রাখা ভ্যানগাড়ি উল্টে দেওয়া হয়একই অভিযোগ করেন মায়ের দোয়া রেস্টুরেন্টের মালিক মো. নজরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘মালিক সমিতির লোক পরিচয়ে হঠাৎ দোকানে হামলা চালানো হয়। ফুটপাতের ছয় ইঞ্চির মধ্যে আমার গ্রিল মেশিন ছিল। বললে সেটি সরিয়ে নিতাম। কিন্তু তা না বলে ভাঙচুর করা হয়েছে। রাস্তা দখল করে যারা ব্যবসা করে তাদের তো কিছু করলো না। আমরা যারা লাখ লাখ টাকায় দোকান ভাড়া নিয়ে ব্যবসা করছি, তাদের মালামাল ভাঙচুর ও কর্মচারীদের ওপর হামলা করা হলো। আমাদের দোষ কী?’

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে সাউথ বনশ্রী ইয়ুথ সোসাইটির সভাপতি জাকির হোসেন মোল্লা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আসলে বিষয়টি তেমন কিছু না। আমরা প্রতি মাসে একটি পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালাই। তারই অংশ হিসেবে আজ অভিযান চালানো হয়েছে। ওই মালিকরা ফুটপাত দখল করে দোকান করেছেন। দোকান তুলে নিতে তাদের অনেকবার বলেছি, কিন্তু শোনেননি। সেখানে গলমন্দ বা হামলার ঘটনা ঘটেনি। আমরা কেনই বা হামলা করবো?’

এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে দক্ষিণ বনশ্রী প্লট মালিক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ হানিফ বলেন, ‘আমি ঘটনাস্থলে এসেছি, বিষয়টি দেখছি। আসলে কয়েক মাস ধরে দোকান মালিকদের বলে আসছি, তোমরা বাইরে মালামাল রেখো না। দোকানের বাইরে রাখা চেয়ারগুলো ভাঙা হয়েছে। তবে কারও ওপর হামলা করা হলে তার বিচার হবে।’

 

 

/এসএস/আইএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ