রাজধানীতে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:৫৪, জুলাই ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৫৬, জুলাই ১২, ২০১৯

লাশ উদ্ধাররাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল থেকে শাহনাজ (৩০) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) দিবাগত রাত দেড়টায় লাশটি উদ্ধার করে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ। পরে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে নিয়ে আসে পুলিশ। উত্তরা পশ্চিম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আশরাফ উদ্দিন এ তথ্য জানান।

শাহনাজ নড়াইল জেলার সদর থানার মাস্টারপাড়া গ্রামের রাহাত ইসলামের স্ত্রী। তার বাবা আলী আকবর। চার ভাইবোনের মধ্যে সে ছিল সবার ছোট। তিনি উত্তরার ৯ নম্বর সেক্টরে স্বামীর সঙ্গে ভাড়া বাসায় থাকতেন।

এসআই আশরাফ উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, মৃত শাহনাজের পরিবার বলছে, সন্তান না হওয়ার কারণে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই কলহ লেগে থাকতো। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে,  গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে ওই গৃহবধূ। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ বলা যাবে।’

এদিকে, শুক্রবার (১২ জুলাই) বিকালে ময়নাতদন্ত শেষে শাহনাজের মরদেহটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ।

শাহনাজের বড়ভাই আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘দুই বছর আগে আমার বোনের বিয়ে হয়। তারপর থেকেই রাহাত তাকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করতো। গত পরশু শাহনাজকে বাসা থেকে বের করে দিতে চেয়েছিল তার স্বামী। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শাহনাজ জানায়, তাকে সেখান থেকে নিয়ে আসার জন্য। পরে সন্ধ্যায় বাসায় গিয়ে দেখি দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করা। আর স্বামী অন্য রুমে টিভি দেখছিল। ঘরের দরজা খুলে ভেতরে গিয়ে দেখি ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে ঝুলে আছে আমার বোন। দ্রুত তাকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত ৯টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার বোন ফাঁস দেয়নি। তাকে মেরে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। আমরা এর বিচার চাই।’

 

/এসজেএ/এআইবি/এমএএ/

লাইভ

টপ