বাড্ডায় গণপিটুনিতে রেণুকে হত্যা, প্রধান আসামি হৃদয় গ্রেফতার

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:২০, জুলাই ২৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৩২, জুলাই ২৩, ২০১৯



ফেসবুকে ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যায় এই হৃদয় রেণুকে পেটাচ্ছে
রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় সন্তানকে স্কুলে ভর্তির খোঁজ নিতে যাওয়া তাছলিমা বেগম রেণুকে ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় প্রধান আসামি হৃদয়কে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জের ভূলতা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

ঢাকা মহানগর গোয়ন্দা (ডিবি) পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, নারায়ণগঞ্জের ভূলতা এলাকায় ডিবি পূর্ব বিভাগের একটি টিম অভিযান চালিয়ে হৃদয়কে গ্রেফতার করে। বর্তমানে হৃদয় ডিবি হেফাজতে রয়েছে।

তিনি আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হৃদয় ওই নারীকে পেটানোর কথা স্বীকার করেছে।

আসামি হৃদয়ের বরাত দিয়ে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান, হৃদয় পেশায় একজন সবজি বিক্রেতা। উত্তর বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনেই সে সবজি বিক্রি করতো। সেদিন রেণুকে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের রুম থেকে ছেলেধরা সন্দেহে টেনে হেঁচড়ে বের করে উৎসুক জনতা। এরপর স্কুলেরই একটি রুমে আটকে রাখে তাকে। একপর্যায়ে উত্তেজিত জনতা ওই রুমের তালা ভেঙে তাকে বের করার পর প্রথমে পেটানো শুরু করে হৃদয়।  

উল্লেখ্য, গত শনিবার (২০ জুলাই) সকালে রাজধানীর উত্তর বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিজের সন্তানের ভর্তির ব্যাপারে খোঁজ নিতে গিয়েছিলেন তাসলিমা বেগম রেণু। ছেলেধরা সন্দেহে তাকে পিটিয়ে হত্যা করে বিক্ষুব্ধ জনতা। ওইদিন সকাল পৌনে ৯টার দিকে উত্তর বাড্ডা কাঁচাবাজারের সড়কে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই রাতেই বাড্ডা থানায় অজ্ঞাত ৪শ’-৫শ’ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন নিহতের ভাগিনা সৈয়দ নাসির উদ্দিন টিটিু। হৃদয় এই মামলার প্রধান আসামি।

এ সংক্রান্ত আরও খবর: এমন নির্মমতা মানতে পারছেন না কেউ 

 

 

/এসজেএ/ এএইচ/

লাইভ

টপ