পোষা কুকুর লেলিয়ে দিয়ে বন্দুক নিয়ে মসজিদ কমিটিকে ধাওয়া

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০১:৫৩, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:০৭, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

ছবি: সংগৃহীতরাজধানীর মাদারটেকে পোষা কুকুর লেলিয়ে দিয়ে এয়ারগান নিয়ে মসজিদ কমিটির সদস্যদের ধাওয়া দেন লিটন খান নামে এক সুইজারল্যান্ড প্রবাসী। শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মাদারটেক মসজিদ সংলগ্ন সড়কে এ ঘটনা ঘটে। পরে রাস্তার পাশে থাকা সিসিটিভির ফুটেজ ও স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে এয়ারগানটি জব্দ ও লিটনকে আটক করে পুলিশ।
পাখি শিকারের এয়ারগানটি পরীক্ষা করে দেখা যায়, এটি দীর্ঘদিন ধরে নষ্ট। এছাড়া লিটন মানসিকভাবে অসুস্থ বলে জানা গেছে। তার চিকিৎসা চলছে।
মসজিদ কমিটির লোকদের ভয় দেখানোর জন্য পাখি শিকারের বন্দুক নিয়ে তাড়া করেছিলেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন লিটন। পরে মুচলেকা রেখে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। সবুজবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব আলম এসব তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, ‘লিটন মাদারটেকে মসজিদের পাশে ভাড়া বাসায় থাকেন। তার একটি জার্মান প্রজাতির শেফার্ড কুকুর রয়েছে। নামাজ পড়তে আসা মুসুল্লীদের ওই কুকুর প্রায়ই বিরক্ত করে। এনিয়ে মসজিদ কমিটির কয়েকজন লিটনের বাসায় অভিযোগ জানাতে গেলে, কথাকাটির একপর্যায়ে হাতাহাতিও হয়। দু’পক্ষই আহত হওয়ার পর, লিটন তার শেফার্ড কুকুর লেলিয়ে দিয়ে মসজিদ কমিটির লোকদের তাড়া করে। সেই সঙ্গে তিনি নিজেও তার বাসায় থাকা নষ্ট এয়ারগান নিয়ে পিছু পিছু ছুটেন। পরে মসজিদ কমিটির লোকজন দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় লিটনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়।’
ওসি আরও বলেন, ‘লিটন সুইজারল্যান্ড থেকে দেশে এসেছেন দুই মাস আগে। আগে অন্য এলাকায় থাকতেন। মসজিদের পাশের বাসায় উঠেছেন ১ সেপ্টেম্বর। তিনি একজন মানসিক রোগী। তার চিকিৎসা চলছে। এছাড়া এয়ারগানটি পুরনো, নষ্ট। সবকিছু বিবেচনায় তাকে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।’

/আরজে/এআরআর/এআর/

লাইভ

টপ