ডিএনসিসির অভিযান: ১০ হাজার বাড়ির ৬০ শতাংশেই লার্ভা উপযোগী পরিবেশ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০১:৪২, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:৪২, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯

এডিস মশার লার্ভা নিধনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) দ্বিতীয় দফায় চালু হওয়া ‘চিরুনি’ অভিযানের পঞ্চম দিনে ৩৬টি ওয়ার্ডের ১০ হাজার ২১২টি বাড়ি ও স্থাপনা পরিদর্শন করা হয়েছে।  এতে ৩৯টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেলেও ৬ হাজার ৪৯টিতে লার্ভা উপযোগী পরিবেশ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ডিএনসিসির জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

বলা হয়, এডিস মশা নির্মূলে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) দ্বিতীয় পর্যায়ের ‘বিশেষ পরিচ্ছন্নতা ও চিরুনি অভিযান’ এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত অব্যাহত রয়েছে। অভিযানের পঞ্চম দিন বৃহস্পতিবার ডিএনসিসির ৩৬টি ওয়ার্ডে ১০ হাজার ২১২টি বাড়ি ও স্থাপনা পরিদর্শন করে ৩৯টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভার উপস্থিতি পায় গেছে। এ ছাড়া ৬ হাজার ৪৯টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশার বংশবিস্তার উপযোগী স্থান বা জমে থাকা পানি পাওয়া যায়। এডিস মশার বংশবিস্তারের উপযোগী এসব স্থান ধ্বংস করা হয়। প্রতিটি ওয়ার্ডের সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলররা ‘চিরুনি অভিযান’ তত্ত্বাবধান করছেন।

এদিকে ডিএনসিসির উত্তরা এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জুলকার নায়নের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়। এসময় উত্তরা ৫ নম্বর সেক্টরের ২ নম্বর সড়কের ৫৩ নম্বর বাড়িতে এডিস মশার লার্ভা, এডিস মশা বংশবিস্তার উপযোগী পরিবেশ এবং নোংরা, ময়লা-আবর্জনা পাওয়ায় রিপন বড়ুয়া নামে এক ব্যক্তিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

 

 

/এসএস/এএইচ/

লাইভ

টপ