ভারতে পালানোর সময় আবরার হত্যা মামলার আরও এক আসামি গ্রেফতার

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:০৭, অক্টোবর ১৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:১৪, অক্টোবর ১৫, ২০১৯

আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডবাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় এজাহারভুক্ত আসামি এ এস এম নাজমুস সাদাতকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এ নিয়ে আবরার হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত ২০ জনকে গ্রেফতার করলো পুলিশ।

ডিবি সূত্রে জানা যায়, দিনাজপুর জেলার বিরামপুর থানার কাঠলা বাজার এলাকা থেকে আজ মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) ভোর রাত সাড়ে ৩টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি বুয়েটের যন্ত্র কৌশল বিভাগের ১৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী। গ্রেফতারকৃত এ এস এম নাজমুস সাদাত জয়পুরহাট জেলার কালাই থানার কালাই উত্তরপাড়ার হাফিজুর রহমানের ছেলে। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন। গ্রেফতার এড়ানোর জন্য তিনি দিনাজপুর জেলার হিলি বর্ডার দিয়ে ভারতে পালানোর চেষ্টা করছিলেন।

বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলা ট্রিবিউনের হিলি প্রতিনিধিকে জানান, আবরার হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি নাজমুস সাদাত বিরামপুরের কাঠলা সীমান্ত পথ ব্যবহার করে ভারতে পালিয়ে যাচ্ছিলেন বলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল বিরামপুর থানায় আসে। পরে বিরামপুর থানা পুলিশের সহযোগিতায় উপজেলার কাঠলা গ্রামে সাদাতের আত্মীয় রফিকুলের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর ডিবি পুলিশ দ্রুত তাকে ঢাকায় নিয়ে যায়। রফিকুল ইসলাম কাঠলায় সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সংস্থা নামের একটি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থায় কর্মরত।

উল্লেখ্য, গত ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয় বুয়েটের ১৭তম ব্যাচের ইলেকট্রিক অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বীকে। রাত ৩টার দিকে হলের দ্বিতীয় তলা থেকে আবরারের মরদেহ উদ্ধার করে কর্তৃপক্ষ। পুলিশ জানিয়েছে, তাকে পিটিয়ে হত্যার প্রমাণ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় একাধিক ভিডিও ফুটেজ পাওয়া যায়। আবরারকে হত্যার ঘটনায় তার বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১৯ জনকে আসামি করা হয়েছে। পরে হত্যায় সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগে বুয়েট ছাত্রলীগের ১৩ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের ইতোমধ্যে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন... 

মেধাবীদের ‘খুনি’ বানিয়েছে কারা?

আবরার হত্যার ষড়যন্ত্র ক্যান্টিনে, প্রথম আঘাত করে ছাত্রলীগের রবিন

/এআরআর/এফএস/এমএমজে/

লাইভ

টপ