খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মানহানি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ৪ নভেম্বর

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:৪২, অক্টোবর ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:০৭, অক্টোবর ১৭, ২০১৯

খালেদা জিয়া

মহান মুক্তিযুদ্ধকে কলঙ্কিত এবং বাংলাদেশের মানচিত্র ও জাতীয় পতাকাকে অবমাননা করার অভিযোগে দায়ের করা মানহানির মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছালো। মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ৪ নভেম্বর দিন ধার্য করেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) এ মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানির দিন ধার্য ছিল। কিন্তু মামলার একমাত্র আসামি খালেদা জিয়া অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি থাকায় তার আইনজীবী অভিযোগ গঠন শুনানি পেছানোর আবেদন করেন। এরপর ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূর আবেদন মঞ্জুর করে পরবর্তী শুনানির জন্য  ৪ নভেম্বর দিন ধার্য করেন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী  জিয়াউদ্দিন  জিয়া এ তথ্য জানান।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের  ৩ নভেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে এবি সিদ্দিকী মানহানির এ মামলা দায়ের করেন। ওই দিনই আদালত ঘটনা তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে তেজগাঁও থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। পরবর্তীতে ২০১৭ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি তেজগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমান মামলার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে বলে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

প্রতিবেদন আমলে নিয়ে ২০১৭ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়াকে ওই বছরের ৫ অক্টোবরের মধ্যে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। একইসঙ্গে প্রতিবেদনে জিয়াউর রহমানের নাম মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য আবেদন করলে বিচারক তা মঞ্জুর করেন। পরবর্তীতে খালেদা জিয়া ৫ অক্টোবরের মধ্যে আত্মসমর্পণ না করায় ১২ অক্টোবর গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়। এরপর ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই এ মামলায় ঢাকা মহানগর দায়রা জজ ইমরুল কায়েস খালেদার জামিন মঞ্জুর করেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০০১ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বাধীনতাবিরোধী ও যুদ্ধাপরাধী জামায়াতের সঙ্গে জোট করে রাজাকার আলবদর নেতাকর্মীদের মন্ত্রী ও এমপি বানিয়ে তাদের বাড়িতে ও গাড়িতে স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা ও মানচিত্র তুলে দেন খালেদা জিয়া।

/টিএইচ/এপিএইচ/এমএমজে/

লাইভ

টপ