ধর্ম অবমাননার ঘটনায় সরকার দায় এড়াতে পারে না: মুফতি রুহুল আমীন

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:১৯, অক্টোবর ২২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৩০, অক্টোবর ২২, ২০১৯

ভোলায় মহানবীকে (সা.) নিয়ে কথিত ফেসবুক পোস্টের ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে চার জন নিহত হনধর্ম অবমাননা রোধ ও হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর মর্যাদা সংরক্ষণ আইন পাশ না করায় অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ করেছেন গওহরডাঙ্গা মাদ্রাসার মুহতামিম ও খাদেমুল ইসলাম বাংলাদেশের আমির মুফতি রুহুল আমীন। একই সঙ্গে ধর্ম অবমাননাকে কেন্দ্র করে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার দায় সরকার এড়াতে পারে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি। মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) গোপালগঞ্জে কওমি মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড গওহরডাঙ্গা বাংলাদেশ আয়োজিত শতাধিক মাদ্রাসার শিক্ষদের সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মুফতি রুহুল আমীন বলেন, আমরা কওমি মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড গওহরডাঙ্গা বাংলাদেশ দীর্ঘদিন ধরে সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান রেখে ধর্ম অবমাননা রোধ ও হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর মর্যাদা সংরক্ষণ আইন পাশের দাবি জানিয়ে আসছি। তবে এ বিষয়ে সরকার কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় এবং ধর্ম অবমাননার প্রচলিত যে আইন আছে তার যথাযথ প্রয়োগ না থাকায় দিন দিন ধর্ম অবমাননার মতো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটছে। যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। সরকার এর দায়ভার এড়াতে পারে না।

ধর্ম অবমাননারোধ ও শেষ নবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর মর্যাদা সংরক্ষণে বাংলাদেশে আইন পাশ হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন মুফতি রুহুল আমীন।

মুফতি রুহুল আমীন ভোলার স্থানীয় জনতার ছয় দফা দাবি দ্রুত সময়ের মধ্যে বাস্তবায়ন ও পুলিশের দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করে আটকদের মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানান।

মুফতি মোহাম্মদ তাসনীম ও মুফতি মাকসূদুল হকের পরিচালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, গওহরডাঙ্গা মাদ্রাসার শাইখুল হাদিস মুফতি আব্দুর রউফ, সংগঠনের মহাসচিব মাওলানা শামছুল হক, সহসভাপতি মাওলানা কাবিরুল ইসলাম, মাওলানা আবুল কালাম, মুফতি আব্দুল হাফিজ, মুফতি মঈনুদ্দিন, মাওলানা হায়াত আলী, মাওলানা শিহাব উদ্দিন, হাফেজ আবু মুসা, তানজীমুল মুদাররিসিনের মাওলানা জিন্নাত আলী, মাওলানা জাহিদ আল হাসান, মাওলানা আতাউর রহমান প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

/সিএ/টিটি/

লাইভ

টপ