behind the news
Rehab ad on bangla tribune
Vision Refrigerator ad on bangla Tribune

আগে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা পরে সংসদ নির্বাচন

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট১৭:৩২, ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৬

এই মুহূর্তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ইস্যুসারাদেশের অধিকাংশ মানুষের দৃষ্টিতে বর্তমান সময়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ইস্যু রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা। দেশের ৬৪টি জেলায় বাংলা ট্রিবিউনের চালানো জরিপে এমনই তথ্য উঠে এসেছে। যেখানে দেখা যায়, সংসদ নির্বাচন অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হলেও তা রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা থেকে বেশি নয়। তবে এই মুহূর্তে নির্বাচন হলে ভোটে এগিয়ে থাকবে আওয়ামী লীগ। এমনই তথ্য উঠে এসেছে জরিপে। 

জরিপে ৪৯৫০ জন অংশগ্রহণকারীদের প্রশ্ন করা হয়েছিল, এই মুহূর্তে আপনার দৃষ্টিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ইস্যু কী? এর উত্তরে ২৯ দশমিক ৭৮ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন, তাদের কাছে এ মুহূর্তে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ইস্যু হলো রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা। অন্যদিকে ২০ দশমিক ৪২ শতাংশ জানিয়েছেন সংসদ নির্বাচন।

এই মুহূর্তে আপনার দৃষ্টিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ইস্যু কী?

অর্থনৈতিক উন্নয়নের কথাও বলেছে ১৪ শতাংশের কিছু বেশি। এরপরই আছে জঙ্গিবাদ নির্মূল- ১৩.৭৮ শতাংশ। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ চান ১০.৭৭ শতাংশ। যুদ্ধাপরাধের বিচারকে সবচেয়ে বড় জাতীয় ইস্যু ভাবছেন ৮.৬৩ শতাংশ অংশগ্রহণকারী। বিভাগীয় শহরগুলোতেও বেশির ভাগ মানুষ (৩৪.১০%) মনে করেন এ মুহূর্তে দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা সবচেয়ে বেশি দরকার।

নির্বাচন হলে ভোটেও এগিয়ে আওয়ামী লীগ:


এই মুহূর্তে নির্বাচন হলে কোন দলকে ভোট দেবেন?

এই মুহূর্তে নির্বাচন হলে কাকে ভোট দেবেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে ২৮ দশমিক ২৬ শতাংশ জানিয়েছেন, তারা আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবেন। এক্ষেত্রে অবশ্য বিএনপিও খুব একটা পিছিয়ে নেই। তাদের পক্ষে রায় দিয়েছেন ২৩.০৭ শতাংশ জনগণ। লক্ষণীয় যে, সারাদেশে ৪১.৫৮ শতাংশ মানুষ এই প্রশ্নে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।

উল্লেখ্য, দেশের ৬৪টি জেলায় ৪৯৫০ জনের ওপর বাংলা ট্রিবিউন এই জরিপ পরিচালনা করে। 

জরিপ প্রক্রিয়া:

জরিপের সময়কাল: ১৭ জানুয়ারি-২৫ জানুয়ারি, ২০১৬

জরিপ পরিচালনা:  বাংলা ট্রিবিউন  

নমুনা (sample) সংগ্রহের প্রক্রিয়া:
১. প্রতি জেলায় ৫০ জন করে ৬৪টি জেলায় জরিপ চালানো হয়েছে।
২. ৭টি বিভাগীয় শহরের প্রতিটিতে ৩০০ জনের ওপর জরিপ করা হয়েছে (ময়মনসিংহ বিভাগীয় শহর বাদে)। 
৩. রাজধানী ঢাকায় ৩০০ জনের ওপর জরিপ পরিচালনা করা হয়।
৪. দৈবচয়ন (Random) প্রক্রিয়ায় প্রতি ১০ মিনিট অন্তর নমুনা সংগ্রহ করা হয়।
৫. জরিপকারীরা একইস্থানে সর্বোচ্চ ১ ঘণ্টা অবস্থান করেছেন।  
৬. নমুনা সংগ্রহের জন্য জেলা/বিভাগের হাট-বাজার/শপিংমলকে স্থান হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে।
৭. জরিপে আয়ের প্রশ্নে ছাত্র ও গৃহিনীর ক্ষেত্রে তাদের পরিবারের আয়-ব্যয় সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়।

 

Ifad ad on bangla tribune

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ