বাংলা ট্রিবিউনকে আবুল হাসানাত আমিনীধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দলগুলো তৃতীয় শক্তি গড়ে তুলছে

চৌধুরী আকবর হোসেন১৭:০৮, মার্চ ১৭, ২০১৬

 বাংলা ট্রিবিউন: সমাবেশ আর ওয়াজ মাহফিলের সঙ্গে কোনও পার্থক্য খুজে পাওয়া যায় না কেন?

আবুল হাসানাত আমিনী: সমাবেশ আর ওয়াজ মাহফিলের শব্দগত ও   উদ্দেশ্য-লক্ষ্যে তেমন পার্থক্য নেই। তবে স্থানকালপাত্র ভেদে কিছুটা পার্থক্য তো রয়েছেই। ধর্মীয় দলের সমাবেশের মূল উদ্দেশ্য থাকে দাবি আদায়, ইস্যু সম্পর্কে সরকার ও জনগণকে সচেতন করা, নাস্তিক্যবাদ-সাম্রাজ্যবাদ ও দেশবিরোধী শক্তিকে রুখে দাঁড়াতে উপস্থিত শ্রোতা ও দেশবাসীর প্রতি থাকে জোর আহ্বান জানানো। অন্যদিকে, ওয়াজ মাহফিলের উদ্দেশ্য থাকে মুসলমানদের হেদায়েতের দাওয়াত, ইহকাল-পরকাল, জান্নাত-জাহান্নামসহ ধর্মীয় বিষয়ে শ্রোতাদের জ্ঞান দেওয়া। একইসঙ্গে ইসলাম না মানার কুফল সম্পর্কিত বিষয়গুলো জানানো। এ কারণেই উভয় মজলিসেই প্রচুর লোক সমাগম হয়, তাই অনেকে ওয়াজ মাহফিলকেও সমাবেশ মনে করেন। এতে দোষের কিছু নেই।

 বাংলা ট্রিবিউন:  ধর্মভিত্তিক দলগুলো নতুন নেতৃত্বে সংকটে ভুগছে বলে মনে করেন কি?

 আবুল হাসানাত আমিনী: বিগত কয়েক বছরে আল্লামা মুফতী ফজলুল হক আমিনীসহ বেশ কয়েকজন নেতার মৃত্যুর পর একটা শূন্যতা তো অবশ্যই তৈরি হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি, এ সংকট সাময়িক। অতীতেও এমন সংকট ছিল। পরবর্তী সময়ে সেই গ্যাপ পূরণ হয়েছে।

 বাংলা ট্রিবিউন: এক সময় হাফেজ্জী  ‍হুজুর, শায়খুল হাদিস, মুফতী আমিনী  আন্দোলন করলে প্রভাব থাকত, যা এখন নেই। বর্তমানে কি  জনসমর্থন কমছে ধর্মভিত্তিক দলগুলোর?

লাইভ

টপ