বিএনপি নেতাদের কপালে জামায়াত নেতার চুম্বন

Send
সালমান তারেক শাকিল ও চৌধুরী আকবর হোসেন
প্রকাশিত : ২০:২৯, জুন ১১, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:২১, জুন ১২, ২০১৬





বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদ ও মির্জা ফখরুলকে চুম্বন করছেন জামায়াত নেতা মুজিবুর রহমানবিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আহ্বানে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে দলটির নেতাদের সঙ্গে সৌজন্য বিনিময়কালে বিএনপি নেতাদের কপালে চুম্বন করেন জামায়াতের সিনিয়র নায়েবে আমির অধ্যাপক মুজিবুর রহমান। বৃহস্পতিবার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও খন্দকার মোশাররফ হোসেনের কপালে এই চুম্বনভাগ্য জোটে।
রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশন হলে ইফতারের কিছু সময় আগে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ২০ দলীয় জোটের নেতাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছিলেন। এ সময় মঞ্চের সামনের দিকে বসা জামায়াতের নেতাদের দিকে এগিয়ে যান ফখরুল। জামায়াতের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির অধ্যাপক মুজিবুর রহমান মির্জা ফখরুলের সঙ্গে মোলাকাত করে বুকে জড়িয়ে ধরেন। এরপর ফখরুলের কপালে চুম্বন করেন। মির্জা ফখরুলের চেহারায় অসন্তোষ ফুটে ওঠে।

জোটনেতাদের নিয়ে মোনাজাত করছেন খালেদা জিয়া

ইফতারের আগ মুহূর্তে বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম বিএনপির স্থায়ী কমিটিসহ ২০ দলীয় জোটের নেতাদের মঞ্চে আসন গ্রহণ করার অনুরোধ করেন। এরপর জোটের নেতারা মঞ্চে ওঠেন। মঞ্চে উঠেই জামায়াত নেতা মুজিবুর রহমান জোট নেতাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।
ইফতারের মিনিট দশেক আগে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদও মঞ্চে ওঠেন। তাকে দেখে এগিয়ে যান মুজিবুর রহমান। ব্যারিস্টার মওদুদও তাকে দেখে কুশলাদি জানতে চান। এরপর মুজিবুর রহমান হাত বাড়িয়ে মওদুদ আহমদের কপালে চুম্বন করেন। এ সময় কর্নেল অলি আহমদ তাদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন।
এর কিছু সময় আগে বিএনপির স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সঙ্গে কথা বলেন মুজিবুর রহমান। এক পর্যায়ে তার কপালেও চুমু এঁকে দেন তিনি।



কুশল বিনিময় করছেন মির্জা ফখরুল
বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে জামায়াতের নায়েবে আমির মুজিবুর রহমান ইফতারে আসেন ঢাকা মহানগর নেতা লস্কর তাসনিমকে সঙ্গে নিয়ে। তিনি এসেই খেলাফত মজলিস, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামসহ জোটনেতাদের সঙ্গে সালাম বিনিময় করেন।
ইফতারের ঠিক আগ মুহূর্তে মঞ্চে খালেদা জিয়া এলে তাকে সালাম দেন মুজিবুর রহমান। তবে বিএনপির চেয়ারপারসনের সঙ্গে কথা হয়নি তার।
মুজিবুর রহমানের পর জামায়াতের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য মাওলানা আবদুল হালিম, ঢাকা মহানগরী জামায়াতে সহকারী সেক্রেটারি সেলিম উদ্দীন, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য অ্যাডভোকেট মশিউল আলম জোটের শরিক দলগুলোর নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন।

বিএনপি নেতাদের সঙ্গে কুশলবিনিময় করছেন জামায়াত নেতা
এর আগে অনুষ্ঠিত বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের কয়েকটি বৈঠকে অংশ নেয়নি জামায়াত। জানতে চাইলে সেলিম উদ্দিন বলেন, আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত আছে। তবে কোনও কারণে হয়তো দুই-একবার আসা হয়নি।

খালেদা জিয়া মঞ্চে ওঠার আগে জামায়াত নেতা মুজিবুর রহমান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলামকেও সালাম দেন। এরপর তার পাশে চেয়ারে বসা আন্দালিভ রহমানের সঙ্গে কথায় মশগুল হয়ে পড়েন। এলডিপির চেয়ারম্যান কর্নেল অলি আহমদ বসেছিলেন তার ডানদিকে। মুজিবুর রহমান তার সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলেন।

কর্নেল ওলি আহমদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছেন জামায়াত নেতা

জামায়াতের এক নেতা জানান, আগামী ২৫ জুন রাজনীতিকদের সম্মানে দলটির ভারপ্রাপ্ত আমির মকবুল আহমাদ ইফতার আয়োজন করেছেন।
জামায়াত নেতারা আসন্ন ইফতারের দাওয়াত দিতে জোটের নেতাদের কার্ড বিতরণ করেন।

ছবি: সাজ্জাদ হোসেন

আরও পড়তে পারেন: আমরা যুদ্ধ করতে চাই না



/এমএনএইচ/

লাইভ

টপ