‘সিটি ট্যাক্সের নেতিবাচক প্রভাব পড়বে সংসদ নির্বাচনে’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:২৫, নভেম্বর ১৫, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:২৫, নভেম্বর ১৫, ২০১৭

বক্তব্য রাখছেন সৈয়দ আবু হোসেন বাবলাঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ানোর কারণে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে— এমন মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় পার্টির সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা। তিনি মনে করেন, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ানোর কারণে ঢাকাবাসী চরম ক্ষুব্ধ। বুধবার (১৫ নভেম্বর) দোলাউরপাড়ে শ্যামপুর-কদমতলি থানা জাতীয় পার্টির বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।
নির্বাচনের আগে মেয়ররা কোন গোষ্ঠীর স্বার্থ হাসিল করার জন্য হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়িয়ে জনগণকে ক্ষেপিয়েছেন কেন খুঁজে বের করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান আবু হোসেন বাবলা। তার ভাষ্য, ‘ট্যাক্স বাড়িয়েছেন মেয়র আর নগরবাসীর কাছে কৈফিয়ত দিতে হয় সংসদ সদস্যদের। হোল্ডিং ট্যাক্স বাড়ানোর কারণে নির্বাচনি এলাকার মানুষের কাছে মুখ দেখাতে পারি না। তারা বিভিন্ন নৈতিবাচক মন্তব্য করেন।’

আগামী ১ জানুয়ারি রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় পার্টির মহাসমাবেশ সফল করার জন্য প্রস্তুতির অংশ হিসেবে ডাকা হয় বুধবারের বর্ধিত সভা। এ প্রসঙ্গে বাবলা বলেন, ‘যে কোনও মূল্য ১ জানুয়ারির মহাসমাবেশ সফল করতে হবে। লাখ লাখ জনতার অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে আমরা প্রমাণ করতে চাই, জাতীয় পার্টি এ দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল। এই মহাসমাবেশ হবে জাতীয় রাজনীতি ও আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের টার্নিং পয়েন্টে।’

শ্যামপুর থানা জাতীয় পার্টির সভাপতি কাওসার আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা সুজন দে, শেখ মাসুক রহমান, কদমতলি থানা জাতীয় পার্টির সভাপতি শামসুজ্জামান কাজল, শ্যামপুর থানার সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম মোল্লা, জহিরুল ইসলাম সরকার, সুলতানা আহমেদ লিপি, শাহ ইমরান রিপন, জহিরুল ইসলাম জহির, হানিফ সর্দার, মোতালেব হোসেন, মাইনুদ্দিন বাবু।

/এসটিএস/জেএইচ/

লাইভ

টপ