ধমক দিয়ে দাবি আদায় হবে না: কাদের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৪৮, আগস্ট ১২, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৪৯, আগস্ট ১৩, ২০১৮

ওবায়দুল কাদের (ফাইল ছবি)ধমক দিয়ে দাবি আদায় হবে না বলে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদকে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ধমক দিয়ে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার কাছ থেকে কিছু আদায় করা যাবে না। আলটিমেটাম দিয়ে তার কাছ থেকে কোনও সুবিধা আদায় করা যাবে না।

রবিবার কোটা সংস্কার আন্দোলন ও নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনে আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তি ও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকারীদের বিচারের দাবিতে সরকারকে আলটিমেটাম দিয়েছে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। রবিবার বিকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় অডিটরিয়ামে স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) শোক দিবসের আলোচনা সভায় সাংবাদিকরা বিষয়টি নিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, কিছুদিন ধৈর্য ধরতে অসুবিধা কী? ছাত্রছাত্রীদের হতাশ হওয়ার কোনও কারণ নেই। কোটা আন্দোলন যারা করেন, তাদের আমি সুখবর দিতে চাই। একটা ব্যালেন্স সিস্টেম চালু করার জন্য কিছুটা সময় লাগছে, তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহের জন্য কিছুটা সময় লাগছে। এটা এখন অনেকদূর এগিয়েছে। আমরাও সমাধানের পথ খুঁজছি।

কাদের বলেন, আমি তাদের অনুরোধ করবো, আস্থা রাখুন শেখ হাসিনার ওপর। আমি অনুরোধ করবো কিশোর-কিশোরী ছাত্রছাত্রীদের, তাদের ৯ দফা দাবি আমরা মেনে নিয়েছি অক্ষরে অক্ষরে। প্রতিশ্রুতি আমরা পূরণ করবো। আজও একটা আন্ডারপাস উদ্বোধন হয়েছে। সড়ক পরিবহন আইন পাসের পথে। কাজেই আমি বলবো অধৈর্য হবেন না, অপেক্ষা করুন, সমাধান হবে। সেই অর্থে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন।

বিএনপির সমালোচনা করে সেতুমন্ত্রী বলেন, তাদের রাজনীতি হচ্ছে সংঘাতের রাজনীতি। তারা ক্ষমতায় থাকাকালীন ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলা করা হয়েছে। মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। যাদের রাজনীতি এত নির্মম তাদের সঙ্গে কি রাজনীতিতে ওয়ার্কিং আন্ডারস্ট্যান্ডিং করার সুযোগ আছে।

'কোরবানি ঈদের পর বিএনপির আন্দোলন’- এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, দিনক্ষণ দিয়ে আন্দোলন হয় না। ৯ বছরে তা প্রমাণ করেছে দলটি। ৯ বছরে ৯ মিনিটও রাস্তায় দাঁড়াতে পারেননি ফখরুল সাহেব। এ দলের নেতারা আন্দোলনের ডাক দিয়ে ঘরে বসে হিন্দি সিরিয়াল দেখেন। আর ফোন করে খোঁজ নেন পুলিশের গতিবিধি। দেশের জনগণ এখন আন্দোলন মুডে নেই। তারা নির্বাচন মুডে আছে। বিদেশিদের কাছে নালিশ এখন বিএনপির পুঁজি মন্তব্য করে সড়কমন্ত্রী বলেন, এরা (বিএনপি) শুধু ইস্যু খোঁজে। ইস্যু খুঁজতে খুঁজতে শিশুদের নিরাপদ সড়কের আন্দোলনে ভর করে ক্ষমতা যাওয়ায় চোরাই পথ আবিষ্কার করতে চেয়েছে। এখানে সুবিধা করতে না পেরে তাদের সাম্প্রদায়িক দোসরদের দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অপপ্রচার চালানোর নীলনকশা করেছে।

১৫ আগস্ট বিএনপি নেত্রীর জন্মদিন পালন নিয়ে কাদের বলেন, আমি একটা কথাই বলতে চাই, ১৫ই আগস্টে জন্মদিন না পালন করে খালেদা জিয়ার জন্য বিএনপি দোয়া মাহফিল আয়োজন করেছে। এর অর্থ কি এটা যে ১৫ই আগস্ট বেগম জিয়ার ভুয়া জন্মদিবস, ক্ষমা চেয়ে দুঃখ প্রকাশ করে তারা এটা থেকে সরে আসছেন।

তিনি বলেন, জন্ম দিবস ১৫ই আগস্ট পালন করবেন না। ভুয়া জন্মদিবস পালন থেকে এরা মোটেই সরছেন না। ১৫ আগস্টে যারা ভুয়া জন্ম দিবস পালন করে, বাংলাদেশে এই ছদ্মবেশী বিধ্বংসী দলের সঙ্গে আমাদের কর্ম-সম্পর্ক থাকার সুযোগ নেই। বেগম জিয়ার ৫টা জন্মদিন। কোনটা সঠিক এটা বিএনপিকে আগে ক্লিয়ার করতে হবে। তারপর আমরা ভেবে দেখবো তাদের সঙ্গে কথা বলা যায় কিনা। স্বাচিপ সভাপতি ডা. ইকবাল আর্সেনালের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, স্বাস্থ্য সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, বিএসএমএমইউর উপাচার্য কনক কান্তি বড়ুয়া, স্বাচিপ মহাসচিব ডা. মো. আবদুল আজিজ প্রমুখ।

/ইএইচএস/টিএন/চেক/এমওএফ/

লাইভ

টপ