রনির মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে বিএনপির কার্যালয়ে আবারও তালা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:০৬, ডিসেম্বর ০৮, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৮, ডিসেম্বর ০৮, ২০১৮

বিএনপিতে যোগ দেওয়া গোলাম মওলা রনির মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে হাসান মামুনের সমর্থকদের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তালা

সদ্য বিএনপিতে যোগ দেওয়া গোলাম মাওলা রনির মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের প্রধান ফটকে তালা দিয়েছে হাসান মামুনের অনুসারীরা। এর আগে দুপুরে সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আ ন ম এহসানুল হক মিলনকে মনোনয়ন দেওয়ার দাবিতে এই কার্যালয়ে তালা দেয় তার অনুসারীরা। শনিবার(৮ ডিসেম্বর) রাত পৌনে ৮ টায় তালা দেওয়া হয়।

পটুয়াখালী- ৩ আসন থেকে বিএনপির চূড়ান্ত মনোনয়ন দেওয়া হয় রনিকে। এই আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি হাসান মামুন। এর আগে রনির মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ করে হাসান মামুনের অনুসারী ছাত্রদল, যুবদলের ৫০-৬০ জন নেতাকর্মী। তাদের দাবি, টাকার বিনিময়ে রনিকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। তিনি আওয়ামী লীগে থাকতে বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর অনেক নির্যাতন করা হয়। বিক্ষোভ মিছিল থেকে রনির নামে বিভিন্ন স্লোগান দেওয়া হয়। এসময় গোলাম মওলা রনিকে ‘রোহিঙ্গা’ বলেও দাবি করা হয় স্লোগানে।

বিএনপি কার্যালয়ে তালা দিয়েছে মনোনয়ন বঞ্চিত হাসান মামুনের সমর্থকরা

হাসান মামুনের অনুসারী পটুয়াখালীর বিএনপি নেতা-কর্মীদের দাবি,  রনি সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ, রাতে বিএনপি করে। এমন রনিকে আমরা পটুয়াখালীর বিএনপি চাই না।

হাসান মামুনের অনুসারী গুলিস্তান ইউনিট যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহীন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, রনিকে আমরা পটুয়াখালীতে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করছি। কারণ, সারা বছর আন্দোলন সংগ্রাম করে নির্যাতন, কারাবরণ করেছেন মামুন ভাই। আর এখন টাকা দিয়ে রনি মনোনয়ন পাবে, এটা হতে পারে না।

পটুয়াখালীর বাসিন্দা ও ঢাকার কবি নজরুল কলেজের ছাত্রদল নেতা ইব্রাহিম বলেন, রনি আওয়ামী লীগে থাকতে বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর অনেক নির্যাতন করেছেন। খালেদা জিয়াকে নিয়ে অনেক নোংরা কথা বলেছেন। আর এখন টাকার বিনিময়ে বিএনপির কিছু নেতা তাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। রনি থাকলে এই আসনে বিএনপি কোনদিনও জয়লাভ করতে পারবে না।

/এএইচআর/টিএন/

লাইভ

টপ