কৃষককে ফসলের মূল্য দিতে হবে: আব্দুল্লাহ আল নোমান

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:৪৭, মে ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৪৯, মে ১৮, ২০১৯

পাটকল শ্রমিকদের ৯ দফা দাবিতে মানববন্ধনবিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, ন্যায্যমূল্য আদায় কর‌তে হ‌লে শ্র‌মিক-কৃষক একসঙ্গে আন্দোলন কর‌তে হ‌বে৷ কৃষককে উৎপাদিত ফসলের মূল্য দিতে হবে। শনিবার (১৮ মে) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী পাটকল শ্রমিক দল আয়োজিত পাটকল শ্রমিকদের ৯ দফা দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এ কথা বলেন।
তি‌নি বলেন, পাট আমাদের মৌলিক সম্পদ। এটাকে বাঁচাতে হবে। পাটকলের শ্রমিক-কর্মচারীদের বাঁচাতে হবে। পাটের উৎপাদন আরও বাড়াতে হবে। মিল কারখানা আরও চালু করতে হবে। আর রাষ্ট্রায়ত্ত মিল কারখানাগুলো বেসরকারি পর্যায়ে দেওয়ার যে ষড়যন্ত্র তার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।
আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, যেখানে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ বলা হয় সেখানে আমদানির প্রশ্নই আসে না। কিন্তু আজকে এই সরকার চাল আমদানি করছে। এটা সরকারের কারসাজি। কৃষকদের উৎপাদিত ফসলের মূল্য দিতে হবে। শ্রমিকদের মজুরি দিতে হবে। আজকে আমাদের মৌলিক শিল্পগুলোকে রক্ষা করতে হবে।
তিনি বলেন, আজকে দেশের যে পরিস্থিতি- তাতে মনে রাখতে হবে, কৃষক যদি না বাঁচে তাহলে দেশ বাঁচবে না। কৃষককে রক্ষা করতে হবে। কৃষককে রক্ষা করতে হলে চাষাবাদের বিস্তৃতি ঘটাতে হবে। চাষাবাদকে যদি বিস্তৃত করতে হয় তাহলে কৃষককে উৎপাদনের খরচ দিতে হবে। আজকে উৎপাদনে কৃষকের যেই খরচ হচ্ছে সে খরচের টাকাও তারা পাচ্ছে না।
দেশের চাহিদা মিটিয়ে বাংলাদেশে উৎপাদিত চাল বিদেশে রফতানি করার পরিকল্পনা করছে সরকার খাদ্যমন্ত্রীর এ বক্তব্যে নোমান বলেন, যেখানে সরকার আমদানি করছে সেখানে উদ্বৃত্ত হয় কিভাবে। আসলে দেশ থেকে বিদেশে টাকা পাচার হচ্ছে। ব্যাংক লুটপাট হচ্ছে। কোন কোন ক্ষেত্রে টাকা পাচার হচ্ছে সেদিকে আমাদের নজর রাখতে হবে। সমা‌বে‌শে পাটকল শ্র‌মিক‌ দ‌লের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা উপ‌স্থিত ছি‌লেন।

/এইচএন/ওআর/

লাইভ

টপ