আমরাই প্রকৃত বিরোধী দল: বিএনপির হারুন

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:১২, জুন ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৩৫, জুন ১৭, ২০১৯

 

বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ

সাংবিধানিকভাবে এবার জাতীয় পার্টি বিরোধী দল হলেও নিজেদের সংসদের প্রকৃত বিরোধী দল দাবি করেছেন বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ। সোমবার (১৭ জুন) সংসদের বৈঠকে চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেটের ছাঁটাই প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরাই প্রকৃত বিরোধী দল। কারণ, গা-বাঁচিয়ে আমরা কথা বলি না।’

এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আপনি যেভাবেই বিরোধী দল সাজান না কেন, মহাজোটের অংশীদারদের দিয়েও সাজান না কেন তাতে কোনও লাভ হবে না। আমরাই প্রকৃত বিরোধী দল।’
এ সময় প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্যরা হইচই করে তার বক্তব্যের প্রতিবাদ জানান।

হারুনুর রশীদ তার বক্তব্যে মহাজোটের শরিক দল ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা রাশেদ খান মেনন ও জাসদ নেতা হাসানুল হক ইনুর নাম উল্লেখ করে কিছু একটা বলতে চান| তবে নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ায় তার মাইক বন্ধ হয়ে যায়।

গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিএনপির ছয় জন নির্বাচিত হন। তবে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শপথ নেননি। ফলে তার আসনটি শূন্য হয়ে যায়। পরে সংসদের আনুপাতিক হারে সংরক্ষিত নারী আসনে একজনকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। সব মিলিয়ে বর্তমানে সংসদে তাদের সদস্য সংখ্যা ছয় জন।

অন্যদিকে সংসদের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্য সংখ্যা ২২ জন। আনুপাতিক হারে তারাও সংরক্ষিত নারী আসনের চারটি আসন পেয়েছে। ফলে তাদের সদস্য সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৬ জনে।

সোমবার সম্পূরক বাজেটের ছাঁটাই প্রস্তাবের আলোচনা ও আগের দিন সম্পূরক বাজেটের আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্যরা সরকারের কিছু বিষয়ের সমালোচনা করলেও বেশ কিছু কর্মকাণ্ডের ভূয়সী প্রশংসা করেন। আলোচনার সময় বিএনপির সদস্যদের বক্তব্য ছিল সরাসরি সরকারি দলের প্রতি আক্রমণ করে। সরকারি দলের পাশাপাশি জাতীয় পার্টির সদস্যরাও এ সময় বিএনপির সদস্যদের বক্তব্যের জবাব দেন।

এরআগে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মঞ্জুরি দাবিতে ছাঁটাই প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে হারুনুর রশীদ বলেন, ‘সারাদেশে বিএনপি দলীয় নেতাকর্মীরা বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হচ্ছেন, তারা গায়েবি মামলার শিকার হচ্ছেন।’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এর জবাবে বলেন, ‘গায়েবি মামলা বলতে কিছু নেই। প্রতিটি ঘটনার সুনির্দিষ্ট বাদী রয়েছে। ঘটনা ঘটছে বলেই মামলা হয়েছে। সাক্ষীও রয়েছে। যারা অভিযোগ করছেন তারা ভুয়া না হলেও ভুল তথ্যের ভিত্তিতে এসব কথা বলছেন।’

/ইএইচএস/টিটি/এমওএফ/

লাইভ

টপ