তারেককে দেশে আসতে দিন: ফারুক

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:০৬, জুলাই ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০৫, জুলাই ১১, ২০১৯

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখছেন জয়নুল আবেদীন ফারুক আওয়ামী লীগকে উদ্দেশ করে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদীন ফারুক বলেছেন, তারেককে এত ভয় কেন। তাকে দেশে আসতে দিন, রাজনীতি করতে দিন। কোনও অন্যায় হলে আইন আছে। কিন্তু, তাকে নির্বাসিত করে তার বিরুদ্ধে কথা বলবেন, সেটা তো রাজনীতির কোনও কর্মকাণ্ড না। এটা তো প্রাচীন একটি রাজনৈতিক দলের মুখে শোভা পায় না।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে ‘অপরাজেয় বাংলাদেশ’ নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

জয়নুল আবদীন ফারুক বলেন, ‘বাংলাদেশ কোনোদিন পরাজিত হয়নি, হবেও না। বাংলার অকুতোভয় সন্তানেরা যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করে দিয়ে গেছেন। গত ৪৮ বছরের মধ্যে এই সরকার যে কয়দিন ক্ষমতায় ছিল, যে কয়বার বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়ে সরকার পরিচালনা করেছে, তাতে বাংলাদেশের মানুষকে তারা সুখ দিতে পারেনি। সংবিধানের প্রতি তারা সম্মান দেখাতে পারেনি। বাংলাদেশের সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে এই সরকার সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস করে দিয়েছে।’

‘বিএনপির দাবি হাস্যকর ও ভ্রান্ত’, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফের এ মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে জয়নুল আবদীন ফারুক বলেন, ‘এই কথা আপনি বিএনপিকে উদ্দেশ করে বলেছেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ করে বলেছেন। আমি বলতে চাই, আপনারা যতবারই ক্ষমতায় ছিলেন, ততবারই জনগণের দুর্ভোগ বাড়িয়েছেন। ততবারই আপনারা বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়িয়েছেন, জনগণের দাবিগুলো অউপেক্ষা করেছেন এবং ভোটাধিকারের ওপর লাথি মেরেছেন। একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে আমি আপনার একথা মেনে নিতে রাজি না এবং জনগণও মেনে নিতে রাজি না।’

বিএনপির সিনিয়র নেতাদের উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘ কর্মসূচি দেন। গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি, দেশে গুম, হত্যা, মামলা, ছোট্ট শিশুকে ধর্ষণের প্রতিবাদ করতে জনগণ আপনাদের কাছে পেতে চায়।’

সংগঠনের সহ-সভাপতি ভিপি ইব্রাহিমের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন— বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপক সিরাজউদ্দিন আহমেদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, সহশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ফরিদা মনি শহীদুল্লাহ, কৃষক দলের সদস্য মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, কে এম রকিবুল ইসলাম প্রমুখ।

/এইচএন/এপিএইচ/এমওএফ/

লাইভ

টপ