ছাত্রদলের শীর্ষ দুই পদে ৭৫ প্রার্থী

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:২২, আগস্ট ২০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১৪, আগস্ট ২০, ২০১৯

ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা
বিএনপির অঙ্গ সংগঠন ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের নির্বাচনে অংশ নিতে আগ্রাহী ৭৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এবারের নির্বাচনে সভাপতি পদে লড়তে ২৭ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে দুই নারীসহ ৪৮ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তবে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন যাচাই-বাছাইয়ে অনেকেই বাদ পড়তে পারেন।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) বিকাল ৪টা পর্যন্ত নয়াপল্টনের বিএনপি কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম জমা নেওয়া হয়। এরআগে, গত ১৭-১৮ আগস্ট ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনে অংশ নিতে ১১০ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন।

সদ্য ভেঙে দেওয়া ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির দফতর সম্পাদক আব্দুস সাত্তার বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনে অংশ নিতে ৭৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরমধ্যে সভাপতি পদে ২৭ জন আর সাধারণ সম্পাদক পদে ৪৮ জন রয়েছেন।

সাধারণ সম্পাদক পদে মনোনয়পত্র জমা দেন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ডালিয়া রহমানতিনি আরও জানান, এবার সাধারণ সম্পাদক পদে দুই নারী মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন- বদরুন্নেসা কলেজের নাদিয়া পাঠান পাবন এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডালিয়া রহমান।

সভাপতি পদে নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন সাবেক তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সহ সম্পাদক মামুন খান। তিনি বলেন, ভোটাররা যাকে যোগ্য মনে করবেন, তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।

সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু তাহের। তিনি বলেন, আশা করি এবারের কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন জোরদার করার মতো নেতৃত্ব বেরিয়ে আসবে।

সাধারণ সম্পাদক পদের আরেক প্রার্থী আমিনুর রহমান আমিন বলেন, সাংগঠনিকভাবে সক্ষম প্রার্থীদের কাউন্সিলররা ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন বলে আমি আশা করি।

সভাপতি পদে যারা মনোনয়পত্র জমা দিয়েছেন: আজিম উদ্দিন মেরাজ, মো. ইলিয়াস, হাফিজুর রহমান, কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবন, সাজিদ হাসান বাবু, আল মেহেদি তালুকদার, মাহমুদুল হাসান বাপ্পি, তানভীর রেজা রুবেল, মো. এরশাদ খান, এবিএম মাহমুদ আলম, মো. আসাদুল আলম টিটু, এম আরজ আলী শান্ত, মো. সুরুজ মণ্ডল, মো. আবদুল মাজেদ, মাইনুল ইসলাম, মো. ফজলুর রহমান, আশরাফুল আলম ফকির লিংকন, মুহাম্মদ ফজলুল হক নিরব, আরাফাত বিল্লাহ খান, এসএম আল আমিন, মো. জুয়েল মৃধা, আবদুল হান্নান, মো. শামীম হোসেন, মো. মামুন খান, এসএএম আমিরুল ইসলাম, সুলায়মান হোসাইন ও আল আমিন কাউছার।

সাধারণ সম্পাদক পদে যারা মনোনয়পত্র জমা দিয়েছেন: রিয়াজ মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, মো. ওমর ফারুক শাকিল চৌধুরী, সিরাজুল ইসলাম, সাজ্জাদ হোসেন রুবেল, সাইফ মাহমুদ জুয়েল হাওলাদার, আবদুল মান্নান, নাদিয়া পাঠান পাপন, ডালিয়া রহমান, এবিএম বাকির জুয়েল, মিজানুর রহমান শরীফ, মো. ওমর ফারুক, মো. হাসান (তানজিল হাসান), মো. আলাউদ্দিন খান, রাশেদ ইকবাল খান, আমিনুর রহমান, ইকবাল হাসান শ্যামল, ইমদাদুল হক মজুমদার, মো. নাইম হাসান, কেএম সাখাওয়াত হোসেন, শাহনেওয়াজ, এএএম ইয়াহইয়া, সোহেল রানা, মোহাম্মদ কারীমুল হাই নাঈম, মো. মহিনউদ্দীন রাজু, আরিফুল হক, মো. রাকিবুল ইসলাম রাকিব, মোস্তাফিজুর রহমান, মো. আসাদুজ্জামান রিংকু, মো. আবুল বাশার, মো. মিজানুর রহমান সজীব, মো. জুলহাস উদ্দিন, মো. মিজানুর রহমান, মো. জাকিরুল ইসলাম জাকির, সাদিকুর রহমান সাদিক, আবদুল মোমেন মিয়া, কাজী মাজাহারুল ইসলাম, মো. আজিজুল হক সোহেল, শেখ মো. মশিউর, মো. জামিল হোসেন, শেখ আবু তাহের, মো. তবিবুর রহমান সাগর, মাজেদুল ইসলাম, মাহমুদুল আলম শাহিন, মো. জোবায়ের আল মাহমুদ রিজভী, নাজমুল হক হাবীব, মো. জহিরুল ইসলাম (দিপু পাটোয়ারি), আনিসুর রহমান সুমন, এমএম বাবুল আক্তার শান্ত ও মুন্সি আনিসুর রহমান।

ছাত্রদলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি জানায়, ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের মনোনয়ন ফরম বাছাই চলবে ২২ থেকে ২৬ আগস্ট পর্যন্ত। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৩১ আগস্ট। চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হবে ২ সেপ্টেম্বর। প্রার্থীরা প্রচার চালাতে পারবেন ৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১২ সেপ্টেম্বর মধ্য রাত পর্যন্ত।

১৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা থেকে ২টা পর্যন্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ভোটে অংশ নেবেন সংগঠনটির সারাদেশের ১১৭টি ইউনিটের ৫৮০ জন কাউন্সিলর।

ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষে নেতাকর্মীদের অবস্থানছাত্রদলের নেতৃত্ব নির্বাচনের জন্য সংগঠনের সাবেক নেতা খায়রুল কবির খোকনের নেতৃত্বে সাত সদস্যের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি, ফজলুল হক মিলনের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের বাছাই কমিটি এবং শামসুজ্জামান দুদুর নেতৃত্বে তিন সদস্যের আপিল কমিটি গঠন করা হয়েছে।

নির্বাচনে অংশ নিতে প্রার্থীদের অবিবাহিত হতে হবে। ছাত্রদলের প্রাথমিক সদস্যপদ থাকতে হবে। বাংলাদেশের যেকোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র হতে হবে এবং কেবল ২০০০ সাল থেকে পরবর্তী সময়ে এসএসসি/সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণরাই প্রার্থী হতে পারবেন। প্রার্থীদের ন্যূনতম স্নাতক পাসের সনদের সত্যায়িত অনুলিপিও জমা দিতে হবে।

ছাত্রদলের নতুন কমিটি নির্বাচনে আপিল কমিটির আহ্বায়ক বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘ছাত্রদলের নতুন সম্ভাবনাময় দিন সৃষ্টির লক্ষ্যে আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পরামর্শে নির্বাচনের মাধ্যমে সংগঠনের আগামী নেতৃত্ব নির্বাচন করা হবে।’

 

/এএইচআর/টিটি/

লাইভ

টপ