১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের সময় জিয়াউর রহমান গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে ছিলেন না: রিজভী

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:৩৩, আগস্ট ২৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৩৪, আগস্ট ২৯, ২০১৯





রুহুল কবীর রিজভী১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সপরিবারে হত্যার পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপির সৃষ্টি হয়নি বলে দাবি করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ‘ওই হত্যাকাণ্ডের সময় জিয়াউর রহমান কোনও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে ছিলেন না। তাহলে তাকে অভিযুক্ত করতে আওয়ামী লীগ নেতারা এত তৎপর কেন? তৎকালীন সেনাপ্রধানের কোনও দায় নেই কেন? কারণ তিনি আওয়ামী লীগের এমপি ছিলেন। ইতিহাসই এর প্রমাণ।’

‘পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড জিয়াউর রহমান’ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এসব কথা বলেন। বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
রিজভী বলেন, ‘যারা সাবেক রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের প্লট তৈরি করেছিল এবং খন্দকার মোশতাকের শপথে অংশ নিতে বঙ্গভবনে গিয়েছিল। তারাই এখন সরকারের চারপাশে ঘোরাঘুরি করছে। পঁচাত্তরে আওয়ামী লীগের লোকেরাই একজন আরেকজনকে হত্যা করেছে, একজন আরেকজনের কাছ থেকে ক্ষমতা দখল করেছে।’
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘আজকে আওয়ামী লীগ শুধু ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য, নিজেদের ক্ষমতা মগ্নতার কারণে, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী এবং সেই হত্যার প্লট যারা তৈরি করেছিল তাদের সঙ্গে সখ্যতা করতে পিছপা হয় না। অথচ কেবল শহীদ জিয়াউর রহমানকে হেয় করার জন্য ক্ষমতা দখল করে তারা এ ধরনের অসত্য বক্তব্যের ধারা বর্ষণ করে যাচ্ছে।’
ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ করে রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এইচটি ইমামকে জিজ্ঞেস করুন তাহলেই ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডের ঘটনার সব উত্তর পেয়ে যাবেন। যারা সেদিন লাশ ডিঙিয়ে মোশতাক সরকারের স্পিকার থেকে শুরু করে মন্ত্রী-এমপি ছিলেন, এদের অনেকেই বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বড় বড় পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। তারা এমপি হন কীভাবে?’
বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘খালেদা জিয়ার কারাবন্দির ৫৬৮তম দিন আজ । সরকারের প্রতিহিংসার কারাগারে তার শারীরিক অবস্থার ক্রমাবনতি হলেও ক্ষমতা হারানোর ভয়ে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে না। এখন আবার তার অসুস্থতা নিয়ে সরকারের বিকৃত মনস্ক লোকজন ফেসবুকে বিভিন্ন গুজব ছড়াচ্ছে।’
‘সব টেলিভিশন চ্যানেল এখন পূর্ণ স্বাধীনতা ভোগ করছে’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘মত প্রকাশের স্বাধীনতার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য বছরের সেরা।’

 

/এএইচআর /আইএ/

লাইভ

টপ