তিন ইস্যুতে রওশন-জিএম কাদেরের সমঝোতা বৈঠক চলছে

Send
আদিত্য রিমন
প্রকাশিত : ২১:৫২, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:৩৭, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯

রওশন এরশাদ ও জিএম কাদেরজাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচন নিয়ে রওশন এরশাদ ও গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদেরের মধ্যেকার সৃষ্ট বিরোধের সমাধান হতে যাচ্ছে। দলটির চেয়ারম্যান জিএম কাদের, সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদকে নির্বাচন করা এবং রংপুর-৩ আসেন প্রার্থী সাদ এরশাদকে মনোনয়ন দেওয়ার বিষয় নিয়ে এই সমঝোতা বৈঠক চলছে বলে জানা গেছে। শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাত নয়টার দিকে বারিধারা ক্লাবে এ বৈঠক শুরু হয়েছে। বৈঠকের মধ্যস্থতা করছেন পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা। বৈঠকের বিষয়টি বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখরুল ইমাম।
দলটির এই প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, ‘জাপার চলমান সংকট নিরসনে একটি বৈঠকে হচ্ছে। এখন এর বাইরে কিছু বলতে পারবো না।’
তবে, পার্টির একটি সূত্র জানিয়েছে, বৈঠকে জিএম কাদেরপন্থীদের মধ্যে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সৈয়দ আবুল হোসেন বাবলা, মাসুদ উদ্দীন। আর রওশনপন্থীদের মধ্যে উপস্থিত রয়েছেন প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ফখরুল ইমাম, মজিবুল হক চুন্নু ও এসএম ফয়সল চিশতী।
পার্টির অন্য একটি সূত্র জানায়, বৈঠকের এজেন্ডায় ৩টি বিষয় গুরুত্ব পাচ্ছে। এই তিনটি হলো—রওশন এরশাদকে বিরোধীদলীয় নেতা ও জিএম কাদেরকে দলের চেয়ারম্যান এবং রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী হিসেবে রাহগির আল মাহির (সাদ এরশাদ) মনোনয়ন দেওয়া। তবে, সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা কে হবেন, তা নিয়ে কিছুটা অনিশ্চয়তা এখনও রয়েছে। কারণ, বিরোধীদলীয় নেতা হতে আগ্রহীদের মধ্যে দলের মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা, প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, ফখরুল ইমামও রয়েছেন। ফলে, বিষয়টির সুরাহা এই বৈঠকে নাও হতে পারে বলে সূত্র জানায়। তবে, এই বৈঠক রাত এগারোটা পর্যন্ত চলতে পারে বলেও সূত্রটি জানায়।

উল্লেখ্য, গত একসপ্তাহ ধরে জাপার চেয়ারম্যান ও সংদের বিরোধীদলীয় নেতা হওয়া নিয়ে দ্বন্দ্ব শুরু হয় জিএম কাদের ও রওশন এরশাদের মধ্যে। এরই জের ধরে বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে জাপার একাংশ রওশন এরশাদকে দলের চেয়ারম্যান ঘোষণা করে। পরবর্তী সময়ে ওইদিনই সংবাদ সম্মেলন ডেকে জিএম কাদের বলেন, ‘রওশন এরশাদকে সম্মান করি, যতটুকু শুনেছি, তিনি নিজে থেকে নিজের কথা বলেননি। শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিষয়টি নিয়ে অস্থির হওয়ার কিছু নেই। জাপা ভাঙেনি। কোনও ভাঙনের মুখে পড়েনি। যেকোনও ব্যক্তি যেকোনও ঘোষণা দিলেই তো তা বাস্তবায়িত হয় না।’

এরআগে, মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে দলীয় প্যাডে নিজেকে সংসদে বিরোধীদলীয় নেতার পদে নিয়োগ দিতে স্পিকারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে চিঠি দেন জিএম কাদের। এরপর দিন বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) জিএম কাদেরের চিঠির বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে তা গ্রহণ না করার অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দেন রওশন এরশাদ। এরই মধ্যে দিয়ে মূলত জাপায় গৃহবিবাদ শুরু হয়।

/এমএনএইচ/

লাইভ

টপ