ভারতের এনআরসি ইস্যুতে সরকারের ব্যাখ্যা দাবি বিএনপির

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:১১, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৩৫, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯





ভারতের আসামে নাগরিকপঞ্জী (এনআরসি) তৈরির প্রশ্নে দেশটির ক্ষমতাসীন বিজেপির নিন্দা জানিয়েছে বিএনপি। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকারের ব্যাখ্যা দাবি করেছে দলটি।
শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ ব্যাখ্যা দাবি করেন।
এর আগে দলের স্থায়ী কমিটির নিয়মিত বৈঠকে অংশ নেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বৈঠকের আলোচিত বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলেন।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আসামের যে নাগরিকপঞ্জী তৈরি করা হয়েছে, তা থেকে ১৯ লাখ নাগরিক বাদ পড়েছে। বিভিন্ন পত্রিকার খবর অনুযায়ী মন্ত্রীরা, বিজেপি নেতৃবৃন্দ বলছেন, তাদের বেশির ভাগই বাংলাদেশের নাগরিক। আমরা এ ধরনের বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ করছি এবং নিন্দা জানাচ্ছি।’
এ ধরনের বক্তব্যকে ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ অভিহিত করে তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকারের নীরব আচরণও দুর্ভাগ্যজনক।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, “ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর এসেছিলেন, তখন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে তিনি এটাকে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে আশ্বস্ত করেছেন। কিন্তু এনআরসিতে বাদ পড়াদের যখন ‘বাংলাদেশের নাগরিক’ বলা হচ্ছে এবং তাদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর কথা বলা হচ্ছে, তখন কিন্তু সেটা বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় থাকছে না। আমরা এই বিষয়ে অত্যন্ত উদ্বিগ্ন।”
মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আসামের অর্থমন্ত্রীর যে বক্তব্য, আমরা এর প্রতিবাদ করছি, নিন্দা জানাচ্ছি। একই সঙ্গে বাংলাদেশের সরকারের কাছে এ ব্যাপারে পরিষ্কার ব্যাখ্যা চাই।’
তিনি বলেন, ‘আমরা ব্যাখ্যা দাবি করছি যে জাতিকে অন্ধকারে না রেখে পরিষ্কার করে জানানো উচিত আসলে বিষয়টা কী।’


বিএনপির চেয়ারপারন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘তার শারীরিক অবস্থা একেবারেই ভালো নেই। ব্লাড পেশার অনেক বেশি, ডায়াবেটিসে সুগারের মাত্রা ১৫, ১৬ পর্যন্ত উঠছে। যা খুবই বিপজ্জনক। একা তিনি উঠতে বা চলাচল করতে পারছেন না। দুজন সহকারীকে দুই পাশে ধরে তুলতে হচ্ছে।’
উন্নত চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি করে তিনি জানান, আগামীকাল রবিবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকালে এ বিষয়ে হাইপ্রোফাইল সংবাদ সম্মেলন করা হবে।
ফখরুল জানান, স্থায়ী কমিটির বৈঠকে মহাসড়কে টোল আদায়ে প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের নিন্দা জানানো হয়েছে।
বৈঠকে লন্ডন থেকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান স্কাইপে যুক্ত ছিলেন। অন্যদের মধ্যে ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, নজরুল ইসলাম খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।
বৈঠকের মাঝামাঝি সময়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন মির্জা ফখরুল। এ বৈঠকেই রংপুর-৩ আসনে উপনিবাচনে প্রার্থী নির্ধারণ করা হবে, এমন সম্ভাবনার কথা জানায় একটি সূত্র।

 

/এসটিএস/এইচআই/

লাইভ

টপ