এই সরকার বিদেশিদের পাপেটে পরিণত হয়েছে : মির্জা ফখরুল

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:৫৪, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১২, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯

792116e1999fa13b9973cd1b8beb2849-5b1c06df0ef9cসারা বিশ্বে যে রাজনৈতিক পরিবর্তনগুলো ঘটছে, তার মধ্যে বাংলাদেশও পড়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘এই সরকার আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীর যোগসাজশে বাংলাদেশের জনগণের অধিকার হরণ করছে। প্রকৃতপক্ষে এই সরকার সম্পূর্ণভাবে বিদেশিদের ‘পাপেট সরকারে’ পরিণত হয়েছে।’ সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় নাগরিক ঐক্য আয়োজিত শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ‘বিশ্ব গণতন্ত্র দিবস ও আমরা’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান সরকার এখনও করতে পারেনি মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘যখন আসামে প্রায় ১৯ লাখ মানুষকে রাষ্ট্রহীন করা হলো, বলা হলো তাদের বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেওয়া হবে, তখন এই নতজানু সরকারকে কোনও প্রতিবাদ করতে দেখি না। এটাই বাস্তবতা।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘স্বৈরতন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর জন্য আমরা নিজেরা ঐক্যবদ্ধ হতে পারছি না।’ তিনি আরও বলেন, ‘জোনায়েদ সাকি ভালো কথা বলেছেন, মাঠে যে আন্দোলন, মাঠে যে কাজ, তার মধ্য দিয়ে ঐক্য তৈরি হবে। আমি তার সঙ্গে একমত।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা যখন রাজপথে এসে আন্দোলন শুরু করতে পারবো, তখন আন্দোলনের মধ্য দিয়ে ঐক্য তৈরি হবে। এটাই সত্য।’

ঐক্যফ্রন্ট সক্রিয় আছে দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘অনেকে বলছেন, ঐক্যফ্রন্টকে সক্রিয় দেখতে পারছেন না।  কোন দিক দিয়ে সক্রিয় নয়?’

জনগণের চাহিদার কারণে দ্রুত ঐক্য তৈরি হবে বলে আশা প্রকাশ করে মির্জা ফখরুল আরও বলেন, ‘ঐক্যের কোনও বিকল্প নেই। সে কারণে নির্বাচনের আগে ঐক্যফ্রন্ট তৈরি করেছিলাম, জোট করেছিলাম। সেই ঐক্য এখনও অটুট আছে। সেখানে কোনও ভাঙন ধরেনি।’

সরকার সম্পূর্ণভাবে জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ইতোপূর্বেও একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করেছিল। যারা গণতন্ত্রের বিশ্বাস করে না, কোনও দিন করেনি, তারা একটি ফ্যাসিস্ট শক্তি।

মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)-এর সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি প্রমুখ।  

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাইফুল হক, গণফোরামের জগলুল হায়দার আফ্রিক, নাগরিক ঐক্যের শহীদুল্লাহ কায়সার, এস এম আকরাম, মোমিনুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক আসিফ নজরুলসহ অনেকেই।

/এএইচআর/এমএনএইচ/এমওএফ/

লাইভ

টপ