বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে বঞ্চিতদের মূল্যায়নের কথা ভাবছে ছাত্রলীগ

Send
সিরাজুল ইসলাম রুবেল
প্রকাশিত : ০৭:৫০, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৫, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯

ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যছাত্রলীগে পদধারী বিতর্কিত নেতাদের বাদ দিয়ে বঞ্চিতদের মূল্যায়ন করার কথা ভাবছে ছাত্রলীগ। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক এ সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন বর্তমান কমিটির সদ্য ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে বাংলা ট্রিবিউনকে এসব কথা জানান সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য।
এর আগে গত ১৫ মে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে ‘বিতর্কিতদের’ বাদ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক নেতা ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। অবশেষে বিভিন্ন অভিযোগে ক্ষুব্ধ হয়ে তিনি গত শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) ছাত্রলীগের সভাপতি পদ থেকে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে গোলাম রাব্বানীকে পদত্যাগ করার নির্দেশ দেন। পরে সিনিয়র সহ-সভাপতি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের হাতে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক দায়িত্ব তুলে দেন।

বিতর্কিতদের চিহ্নিত করতে সহযোগিতার অনুরোধ
কমিটিতে যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে তাদের চিহ্নিত করতে সাংবাদিক এবং ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে পদবঞ্চিত যারা তাদের বিষয়টিও বিবেচনা করা হবে বলে জানান সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বিতর্কিতদের বাদ দিতে যে নির্দেশনা দিয়েছেন, সে মোতাবেক আমরা কাজ করবো। এক্ষেত্রে সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা কামনা করছি। আর যারা পদবঞ্চিত হয়েছেন তাদের পদায়নের বিষয়েও আমরা ভাবছি। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, সেই অভিযোগ তদন্ত করতে আমরা কেন্দ্রীয় নেতাদের দায়িত্ব দেবো। সুস্পষ্ট তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে বঞ্চিতদের মূল্যায়ন করা হবে।’

পদবঞ্চিতদের সহযোগিতার আশ্বাস
ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন পদবঞ্চিতরা। তারা বলছেন, দায়িত্ব পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ভারপ্রাপ্ত নেতারা তাদের ডেকেছেন। এতে পদবঞ্চিতরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এদিকে, সংগঠন থেকে বিতর্কিতদের বাদ দিতে পদবঞ্চিতরাও সর্বোচ্চ সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। বিতর্কমুক্ত আন্দোলনের মুখপাত্র রাকিব হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা চেয়েছি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বিতর্কমুক্ত হোক। এজন্য আমরা টানা এক মাস চারদিন আন্দোলন করেছিলাম। আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে আপার (শেখ হাসিনা) ছাত্রলীগকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।’

যোগ্যতার ভিত্তিতে পদায়ন 
পদবঞ্চিতদের যোগ্যতার ভিত্তিতে পদায়ন করা হবে। এক্ষেত্রে যারা ত্যাগী, যাদের পরিবার আওয়ামী ঘরানার, এমন কর্মীদের পদ দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

সবাইকে নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় 
সংগঠনকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সবার সহযোগিতা চেয়ে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, ‘ছাত্রলীগ একটি বৃহৎ সংগঠন। সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে দেশরত্নের নির্দেশনা অনুযায়ী সংগঠনকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।’

আরও পড়ুন: শোভন-রাব্বানী বাদ, ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জয়-সা. সম্পাদক লেখক

 

/ওআর/এমএমজে/

লাইভ

টপ