২৮ বছর পর ছাত্রদলের ভোট, ফল প্রকাশ হতে পারে বৃহস্পতিবার সকালে

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০৩:১৮, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৩২, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯

ভোট গণনার দৃশ্য

প্রায় ২৮ বছর পর সরাসরি কাউন্সিলরদের ভোটে নির্বাচিত হতে যাচ্ছে ছাত্রদলের নতুন নেতৃত্ব। বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টার দিকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হয় মধ্যরাতে।

দায়িত্বশীল সূত্রের বরাত দিয়ে বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমি জেনেছি রাত ৩টার দিকে ভোট গণনা চলছে।’

একজন প্রার্থী জানান, ভোট গণনা শেষ হতে আরও সময় লাগবে। ফল প্রকাশের সম্ভাবনা আছে সকাল হওয়ার পর।

ফলাফলের জন্য মির্জা আব্বাসের বাসার আঙ্গিনায় প্রার্থী ও কাউন্সিলরদের অপেক্ষা

বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে রাজধানীর শাহজাহানপুরে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের বাড়িতে ছাত্রদলের কাউন্সিলরদের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সেখানেই শুরু হয় ভোট গণনা। এসময় বাড়ির আঙ্গিনায় ছাত্রদলের ভোটার ও প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী।

প্রার্থী মামুন খান জানান, ভোটগ্রহণে দেশের সনাতন পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়েছে।

ফলাফলের জন্য মির্জা আব্বাসের বাসার আঙ্গিনায় প্রার্থী ও কাউন্সিলরদের অপেক্ষা

উপস্থিত ছাত্রদলের নেতারা জানান, ভোট গ্রহণের পর রাত দুইটার দিকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও ছাত্রদলের নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত অভিভাবক তারেক রহমান দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন।

ছাত্রদলের নির্বাচিতদের ধৈর্য ধরে ও হঠকারিতা না করে কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার নির্দেশ দেন বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব। নির্বাচিতদের নিয়ে স্লোগান না দেওয়ার কথাও জোর দিয়ে বলা হয়। এছাড়া কারও উস্কানিতে পা না দিয়ে অত্যন্ত সতর্কভাবে সামনে চলার আহ্বান জানানো হয়েছে।  

সবর্শেষ প্রাপ্ত তথ্যমতে, মির্জা আব্বাসের বাড়ির আশেপাশে আইনশৃঙ্খলা ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা অবস্থান করছেন। এ প্রতিবেদন লেখার সময় (রাত সোয়া ৩টা) কোনও অঘটনের খবর পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ, ১৯৯২ সালে ছাত্রদলের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। ইলিয়াস আলী ও রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বাধীন সেই কমিটি মাত্র তিন মাসের মাথায় ভেঙে দেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এরপর থেকে বিএনপির মনোনীত নেতাদের দিয়ে ছাত্রদলের কমিটি গঠিত হয়ে আসছিল।  এবারে ছাত্রদলের কাউন্সিলে সভাপতি পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৯ জন। সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৭ জন।  

আরও খবর:  ছাত্রদলের ৬ষ্ঠ কাউন্সিল: মির্জা আব্বাসের বাসায় ভোটগ্রহণ সম্পন্ন  




 

 

 

/এসটিএস/এএইচ/

লাইভ

টপ